কাগজ অপচয় বন্ধ করতে পরীক্ষা বয়কটের দাবি জানালো শিক্ষার্থীরা

৩৮৫ পঠিত ... ১৮:৫২, মে ২৬, ২০২২

Porikkha-boycot

আমরা মনের অজান্তেই বিভিন্ন সময় বিভিন্নভাবে বিভিন্ন জিনিস অপচয় করে থাকি। কখনো কখনো পরিবেশকেও ফেলি হুমকির মুখে। সম্প্রতি বাংলাদেশী জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক, বিজ্ঞান কল্পকাহিনী লেখক, কলাম লেখক, পদার্থবিদ, শিক্ষাবিদ ও আন্দোলনকর্মী মুহম্মদ জাফর ইকবাল আমাদের অন্ধ চোখে আলো জ্বেলে দিয়েছেন। এক বক্তব্যে তিনি জানান, 'কোথাও এক টুকরো কাগজ মানে কোথাও গাছ কাটা হচ্ছে।’

এমন বক্তব্যে নেটিজেনদের ভেতর মিশ্র প্রতিক্রিয়ার জন্ম দিলেও শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে এক অভূতপূর্ব সাড়া পাওয়া গেছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ঢাকা কলেজের এক শিক্ষার্থী জানান,‘জাফর স্যারের কাছে আমরা কৃতজ্ঞ এ বিষয়টি উত্থাপনের জন্য। দেশে সবচেয়ে বেশি কাগজ অপচয় হয় শিক্ষার্থীদের হাতে, বিশেষ করে পরীক্ষার সময়। অনেক শিক্ষার্থী একের পর এক লুজশীট নিতেই থাকে। অথচ এর জন্য যে প্রতিদিন লক্ষ লক্ষ গাছ কাটা হচ্ছে—সে ব্যাপারে কোনো চিন্তা নেই। ব্যক্তিস্বার্থে কথা চিন্তা করে পরিবেশকে হুমকির মুখে ফেলে দেওয়া শুধুমাত্র স্বার্থপর মানুষের পক্ষেই সম্ভব৷ এ কারণেই পরীক্ষার হলে আমি বেশি লিখে কাগজ নষ্ট করি না....' এ সময় পাশ থেকে আরও অসংখ্য শিক্ষার্থী সহমত জ্ঞাপন করেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জনি মিয়া (২৮) নামের আরেক শিক্ষার্থী বলেন, ’একটি কোট আছে, হোয়েন উই অনার দ্য মাদার ন্যাচার, উই অনার আওয়ারসেলভস। পৃথিবীকে বাঁচিয়ে রাখতে চাইলে এর প্রতি যত্নশীল হতে হবে। অবাধে গাছ কাটা বন্ধ করতে হবে৷ পরীক্ষা বন্ধ করলেই অর্ধেক গাছ কাটা বন্ধ হবে। কাগজ কলমে পরীক্ষার পরিবর্তে অনলাইন পরীক্ষার আয়োজন করা যায়৷ আমরা বন্ধুরা অনলাইনে বসে একসাথে পরীক্ষা দিবো। এতে মাদার ন্যাচারেরও লাভ, আমাদেরও লাভ... ’ এই বলে মুচকি হাসেন জনি।

তবে শেষ তথ্য পাওয়া মতে, বাজারে আসছে পরিবেশবান্ধব খাতা। মজার ব্যাপার হলো খাতাগুলো তৈরি করা হচ্ছে গাছের ঝড়ে যাওয়া শুকনা পাতা থেকে। প্রাকৃতিক রাবার ব্যবহার করেই একের পর এক জোড়া লাগিয়ে তৈরি হচ্ছে এ খাতাগুলো। জানা গেছে, খুব শীঘ্রই সারাদেশে এটি রপ্তানি হবে।

৩৮৫ পঠিত ... ১৮:৫২, মে ২৬, ২০২২

Top