প্রফেসর জাফরায়েভ একাই একশো

৭২৯ পঠিত ... ১৬:৫৪, জানুয়ারি ২৯, ২০২২

Zafar-sir-ekai-eksho

কারগান্ডা বিশ্ববিদ্যালয়ের অল্পবয়েসী শিক্ষার্থীদের নিয়ে সরকার, উপাচার্য, শিক্ষক, পুলিশ, গোয়েন্দা সংস্থা ও সহমত ভাইদের নিষ্ঠুর লীলাখেলা দেখে উইলিয়াম শেক্সপিয়ার দুঃখ করে বলেছেন, ‘মনে হচ্ছে দোজখ খালি হয়ে আছে; কারণ বদমাইশগুলিরে সব কাজাখস্তানে দেখতেছি।‘  

কারগান্ডা বিশ্ববিদ্যালয়ে বুধবার দিবাগত রাতে শিক্ষার্থীদের অনশন থেকে বিরত করেছেন কারগান্ডার সাবেক শিক্ষক জাফরায়েভ ইকবালস্কি। তিনি কাজাখস্তানের টোকায়েভ সরকারের সমর্থক হলেও ছাত্রপ্রাণ এক শিক্ষক। তিনি আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের টোকায়েভ সরকারের ’প্রশস্তি প্রকল্প’ থেকে পাওয়া  টাকা দিয়ে বলেছেন, তোমাদের সাহায্য করার দায়ে পুলিশ আমাকে গ্রেফতার করুক; আমি সেটাই দেখতে চাই। ইকবালস্কি ৩৪ গাভী বৃত্তান্তের সমালোচনা করে বলেছেন, ‘শুধু এই গার্মেন্টসকি ফরিদভ নয়; পদত্যাগের হুমকি দেয়া ৩৪ উপাছার্যের বিদায় দেখতে চাই।‘ ইকবালস্কি টোকায়েভ সরকারের সমর্থক হওয়ায়, তিনি আন্দোলনকে স্তিমিত করে দিলেন কিনা এই সংশয় সাধারণ কাজাখদের মনে।   

 ওদিকে কারগান্ডা বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়ন বাজেটের ১২০০ কোটি টাকার ভাগ পেতে উন্মুখ  ‘স্থানীয় সরকার সমর্থকে’রা ইকবালস্কিকে অতীতে অনেক অপমান করেছে। এবারেও তার উপস্থিতির সূত্র ধরে, ‘আউলিয়ার অনুভূতি ধন্য কারগান্ডার সংস্কৃতিতে প্রগতিশীলতার বিষ’ জাতীয় সেন্টিমেন্টের হাওয়ায় পাল তুলে, টোকায়েভ সরকারের ধর্মীয় কট্টরপন্থীদের উষ্কে দিয়ে ও ১২০০ কোটি টেকাটুকার ভাগ তদসঙ্গে 'খাসজমি' বরাদ্দের আশ্বাস দিয়ে; শিক্ষার্থীদের আন্দোলন ভন্ডুলের নীলনকশা করছে স্থানীয় দলীয় মাঝিরা; এমন আশংকা উঁকি দিচ্ছে ফেসবুকের হোমফিডে।  

 টোকায়েভ সরকারের ঐ এক গুণ; প্রয়োজনে সংস্কৃতি মামা-প্রয়োজনে ধর্মমামা এনে জন আন্দোলন ভণ্ডুল করার ভিলেজ পলিটিক্সে সিদ্ধহস্ত তারা। আর আছে ঝুমঝুমস্কি বাজনদারভ টাইপের গোয়েন্দার সাইডকিক দিয়ে আন্দোলনের সমর্থকদের গুম ও গ্রেফতার করার ভিলেজ-পলিটিক্স অপকৌশল। এতোসব সরকারি টোকাই নিয়ে টোকায়েভের এই লীলাখেলার মাঝে কারগান্ডার ছাত্র আন্দোলন তাদের দাবী পূরণে সক্ষম হবে কিনা; তা নিয়ে দুশ্চিন্তার দোলাচল বিরাজ করছে কাজাখস্তানে।

টোকায়েভ সরকার সমর্থিত নিউজ পোর্টাল জানাচ্ছে, সরকার প্রতিনিধি নানকায়েভ, সুভাষস্কি, কাজাখ শিক্ষা উপমন্ত্রী নওফেলস্কি হাতেমভ কারাগন্ড ক্যাম্পাসে ঢোকার সাহস না করে কারগান্ডার সাবেক শিক্ষক জাফরায়েভ ইকবালস্কির বাসায় যান। তাকে অনুরোধ করেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের অনশন ভাঙাতে। এরপর জাফরায়েভ ইকবালস্কির মধ্যস্থতায় অনশন ভাঙে শিক্ষার্থীরা।

টোকায়েভ সরকার উপাছার্য গার্মেন্টসকি ফরিদভকে পদত্যাগের অনুরোধ করবে এমন খবর দিচ্ছে সূত্রগুলো। শিক্ষক সমিতি নেতা আইজাক তুলসিস্টাইন বা কারাগন্ডের অন্য কোন টোকায়েভ অনুগত শিক্ষক ফরিদভের স্থলাভিষিক্ত হবেন, এমন গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে।

ওদিকে টোকায়েভ সমর্থকদের ট্যাগিং বিশৃংখলায় এদের একটি অংশ কারাগন্ডের আন্দোলনকারী ছাত্রদের পরাজিত শক্তির ষড়যন্ত্রের দোসর বলেছে। অন্য অংশটি বলেছে এই ছাত্ররা নাস্তিকদের দোসর। এরকম ট্যাগিং বিশৃংখলায় কাজাখস্তানে ট্যাগিং বিষয়টি দুধভাত হয়ে পড়লো বলে মন্তব্য করছেন কাজাখ নাগরিক সমাজের সভ্যতা।

ওদিকে কারগান্ডা সংকট পুরোপুরি সমাধান হবার আগেই, কাজাখস্তানের রাজধানী নূর সুলতানের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠে সরকার দলীয় ছাত্র সংগঠনের টর্চার সেল উন্মোচিত হয়েছে। এই সরকার সমর্থক আলেবান সেনারা সাধারণ ছাত্রদের ওপর নির্যাতন চালায় কিরগিজস্তানের খান সেনা ও তুর্কমেনিস্তানের তা-লেবান স্টাইলে। সম্প্রতি আলেবানরা এক ছাত্রের চোখে তীব্র অপারেশান সার্চলাইট ফেললে, ছাত্রটি এক পর্যায়ে অজ্ঞান হয়ে যায়। এ ব্যাপারে সর্বোচ্চ বিশ্ববিদ্যালয়টির উপাছার্যের কোন প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ ছাত্রদের জিজ্ঞেস করা হয়েছিলো, কারগান্ডা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ ছাত্ররা আলেবানদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুললেও, নূর সুলতান বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্ররা এমন চিত্রনায়িকা  শাবানাভের মতো অসহায় কেন! পড়ে পড়ে মার খায় কেন! এ প্রশ্নের উত্তরে এক মেধাবী ছাত্র বলে, ‘কেসিএস পরীক্ষার গাইড পড়ে সময় যায়, প্রতিরোধ গড়বো কখন। তবে পরীক্ষা পাশ করে টোকায়েভ সরকারের পুলিশ হয়ে পাবলিক পিটিয়ে সুখ পাবো, এই আশায় আছি।‘

৭২৯ পঠিত ... ১৬:৫৪, জানুয়ারি ২৯, ২০২২

Top