১০০ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে হলের ডাল দিয়ে গণগোসলের আয়োজন করবে ঢাবি

৫৯৮ পঠিত ... ১২:০৪, ডিসেম্বর ০৪, ২০২১

Dal-diye-gosol

বাংলাদেশের সবচেয়ে প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী বিশ্ববিদ্যালয়টি তৈরি হয়েছিলো আজ থেকে প্রায় ১০০ বছর আগে, ১৯২১ সালে। ১০০ বছর পূর্তি উপলক্ষে ২০২১ সালে চলছে শতবর্ষ উদযাপন। শত বছরের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রয়েছে শত শত অর্জন৷ র‍্যাগ, গণরুম, ম্যানার, সংঘর্ষ, গবেষণাপত্র নকল, হলের ডাল সহ শতশত অর্জনে প্রতিনিয়তই সমৃদ্ধ হয়েছে দেশের সর্বোচ্চ এই বিদ্যাপিঠ।

শত বছরে ক্যাম্পাসের লাইট, বিল্ডিংগুলোতে মরিচবাতি লাগানোর পাশাপাশি নিজেদের অর্জন নিয়েও কাজ করবে প্রতিষ্ঠানটি৷ সেই লক্ষ্যে হলের ঐতিহ্যবাহী ডাল দিয়ে গণগোসলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ৷ সম্পূর্ণ ভূয়া ননঢাবিয়ান একটি সূত্র আমাদের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে৷

ভূয়া সূত্রটি থেকে জানা গেছে, এই গণগোসল কর্মসূচির আওতায় ক্যাম্পাসের রাস্তাগুলোয় অবস্থান নিবে ছাত্র শিক্ষক সবাই। ভিসি মহোদয় গোসলের উদ্বোধন করবেন৷ এরপর ধীরে ধীরে প্রক্টর, প্রভোস্ট, শিক্ষক হয়ে সিনিয়রিটি বজায় রেখে শিক্ষার্থীরাও এই ডালস্নানে অংশ নিবেন।

এই ডালস্নান নিয়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে বেশ উচ্ছ্বাস লক্ষ্য করা, হলের ডাল দিয়ে হাত ধুতে ধুতে এক শিক্ষার্থী বলেন, 'খুব মজা হবে৷ ডালের কালার হালকা হলুদাভ থাকায় যাকে বলে একদম গায়ে হলুদও হয়ে যাবে৷ এরপর বিয়ে। হিহি।'

গণগোসলের এই আইডিয়া প্রথম মাথায় আসে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্র রাজীবের। জানা যায়, রাজীব সত্যই হলেই প্রথম দিন ডালকে পানি ভেবে তা দিয়ে হাত ধুয়েছিলো। পরবর্তীতে ভাইদের বকা খেয়ে সে জানতে পারে জিনিসটা ডাল ছিলো, এবং তৎক্ষণাৎ এই ডাল দিয়ে গোসলের কথা চিন্তা করে৷

রাজিব জানায়, 'এত স্বচ্ছ আমাদের ডালটা! আমি তো একবার মুখও ধুয়ে ফেলছিলাম৷ ভাবলাম, এই স্বচ্ছ ডাল নিয়ে কিছু একটা করি। এরপরই এই আইডিয়াটি মাথায় আসলো৷ বন্ধুদের সাথে শেয়ার করলাম। ওদের বেশ পছন্দ হলো। এরপর স্যারদের সাথে কথা বলে আমরা আয়োজনে নেমেছি।'

আমাদের কানে কানে এই শিক্ষার্থী বলেন, 'কাউকে বলবেন না, আমি তো একবার ভুলে ডাল দিয়া শৌচকর্ম করে ফেলেছিলাম। হালকা জ্বলছে৷ পানি হলেও ঝাল আছে।'

এদিকে টিএসসি কেন্দ্রিক ঢাবি অ্যাস্থেটিক সমিতি এই গণগোসলের ডালের সাথে কাঠগোলাপ ও অপরাজিতা ফুলের নির্যাস যুক্ত করার আহবান জানিয়েছে৷

৫৯৮ পঠিত ... ১২:০৪, ডিসেম্বর ০৪, ২০২১

Top