‘তথ্য আছে’ বলে রিকশাচালকের হুমকি, নিরাপত্তাহীনতায় শহরের ৭০ হাজার প্রেমিক-প্রেমিকা

২৮৪ পঠিত ... ২০:৫৫, নভেম্বর ৩০, ২০২১

Rickshawla-humki

ফেসবুক, গুগল ও থার্ড পার্টি নানা অ্যাপের পর এবার হাজির হয়েছে নতুন এক তথ্য ছিনতাইকারী। শাহেদ নামের এই প্রযুক্তিবিদ ছিনতাইকারী পেশায় একজন রিক্সাচালক। ঢাকা শহরের বিভিন্ন এলাকায় তিনি শুধুমাত্র প্রেমিক প্রেমিকাদেরকে সুলভ মূল্যে রাইড দিতেন। সেই সুবাদে তার নামই হয়ে গিয়েছিলো ‘কাপল মামা’। প্রায় তিন বছর রিকশা চালানোর পর তার আসল চেহারা ধরা পড়ে প্রতিবেদনে৷  

জানা যায়, শাহেদ হোসেনের রিকশার হুডের পশ্চিম দিকে নিচের কর্নারে একটি ছোট অডিও রেকর্ডার রাখা থাকতো। কানে থাকতো তার ব্লুটুথ ইয়ারফোন। সামনের দিকে থাকতো এক অদৃশ্য স্ক্যানার। যাত্রীদের কথোপকথন ও আরো নানাবিধ তথ্য সংগ্রহ করতেন তিনি। পরবর্তীতে এইসব তথ্য বিক্রি করে দিতেন অক্সফোর্ড অ্যানালেটিকার মত বড় বড় ডাটা প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছে৷

সিলিকন ভ্যালির একাধিক টেক জায়ান্ট প্রতিষ্ঠান শাহেদের কাছ থেকে তথ্য নিয়ে নিজেদের ব্যবসা বাড়িয়েছে৷ এই তালিকায় আছে, অ্যাপল, ফেসবুক, অ্যামাজন, ওয়ালমার্ট সহ আরো অনেকে।

এ বিষয়ে কথা বলতে চাইলে এক অজ্ঞাত স্থান থেকে ডার্ক ওয়েবের সাহায্যে শাহেদ বলেন, 'মামা, আপনেরা মনে করেন শুধু ফেসবুকই আপনাগো তথ্য নেয়! হেহে৷ অথচ রিক্সা এমন এক জায়গা যেখানে একজন আরেকজনের লগে গল্পে গল্পে নানাবিধ তথ্য দিয়া দেয়৷ ওই তথ্যগুলাই আমি নিয়েছি৷ এরপর বিক্রি করেছি৷ এখনো আমার কাছে অনেক তথ্য আছে৷ যার তথ্য তারা নিতে চাইলে উপযুক্ত দাম দিয়ে নিয়ে যাবেন।'

নিউইয়র্ক ভিত্তিক এক গোপন সূত্র মারফত জানা গেছে, 'আমেরিকান নির্বাচনে অক্সফোর্ড এনালেটিকা শাহেদের কাছ থেকে প্রচুর ডাটা নিয়েছে৷ সেই ডাটা ব্যবহার করেই ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রচারণা চলেছে৷ জয়ের পর ট্রাম্প নিজে শাহেদকে ফোন করে চা খাওয়ার দাওয়াত দিছিলেন।'

তবে এ প্রতিবেদনে ভয়ে সন্ত্রস্ত ঢাকা শহরের প্রায় ৭০ হাজার প্রেমিক প্রেমিকা। এদের মধ্যে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কাপল বলেন, ' ফেসবুক তথ্য নিয়া গেছে—এমন নিউজেও এত ভয় পাই নাই! রিক্সায় উইঠা কত কিছু বলছি। শাহেদ মামা এইটা কাম করলো! এখন অনেক নার্ভাস লাগছে৷ ও তথ্য ফাঁস করে দিক, তবু বিক্রি না করুক।'

২৮৪ পঠিত ... ২০:৫৫, নভেম্বর ৩০, ২০২১

Top