ব্রিকফিল্ডের স্তুপ করা টিলাকে মিনি বান্দরবান ঘোষণা করলেন নোয়াখালীর কাউসার  

১৫১ পঠিত ... ১৭:১২, অক্টোবর ১১, ২০২১

Mini-Bandarban

নিজের ব্রিকফিল্ডের ইঁট তৈরির জন্য গত সিজনের শেষে মাটি মজুদ করেছিলেন কাউসার। ৫-৬ টা ছোট টিলায় মজুদ করা মাটির স্তুপগুলোয় উঠেছে ঘাস৷ কাউসারের এই মাটির টিলাই এখন নোয়াখালীর মিনি বান্দরবান। কাউসারের মিনি বান্দরবন দেখতে মানুষের উপচে পড়া ভিড় লেগে আছে সবসময়৷   

জানা যায়, মাটি স্তুপ করার দু-এক মাস পরে এলাকার অনেকেই সেখানে গিয়ে ছবি তুলে ফেসবুকে আপলোড দিতো। ক্যাপশন দিতো 'মিনি বান্দরবান'। অনেকের দেখাদেখি কাউসারেরও একদিন মিনি বান্দরবান যাওয়ার ইচ্ছে হয়। বন্ধুদের নিয়ে খোঁজখবর করে কাউসার গিয়ে দেখেন, এ যে তারই ব্রিকফিল্ড!

এরপরই কাউসারের মাথায় ব্যবসায়িক পরিকল্পনাটি আসে। স্থানটিকে সংরক্ষণ করে ৫০ টাকা টিকিটের বিনিময়ে দেখার সুযোগ পায় সবাই৷ জানা যায়, প্রতিদিন ৫০০-৮০০ দর্শনার্থী আসে কাউসারের মিনি বান্দরবান দেখতে। ইঁট ভাটার ব্যবসা ছেড়ে দেবেন বলেও জানান কাউসার৷ নোয়াখালী জুড়ে নিজের ১৮টি ইঁট ভাটাকেই মিনি বান্দরবন হিসেবে গড়ে তুলতে চান তিনি৷      

এ বিষয়ে কথা বলার জন্য ৫০ টাকা টিকেট কেটে কাউসারের কাছে যাই আমরা৷ মিনি বান্দরবান ও এর উন্নয়ন ভাবনা নিয়ে তিনি বলেন, 'নোয়াখালীর মানুষের ভ্রমণ চাহিদা মেটানোর জন্য আমার এমন ভাবনা। মুসাপুর নামে আমাদের এখানে একটা মিনি কক্সসবাজার আগে থেকেই আছে৷ এখন বান্দরবানের চাহিদাও পূরণ হলো৷ ধীরে ধীরে আমরা জাফলং, পাতায়া, বালি, চাঁদ, মঙ্গল ইত্যাদির মিনি ভার্সন বানানোর দিকেও এগিয়ে যাবো।'     

মিনি বান্দরবনের উন্নতির প্রসঙ্গে তিনি বলেন, 'বান্দরবন এলাকার পাহাড়গুলোর ছবি তোলা হয়েছে৷ দ্রুতই সেগুলো প্রিন্ট করে আমরা আমাদের বান্দরবানের পাহাড়ে লাগিয়ে দেবো৷ এমনভাবে উন্নতি করবো এটা যে বাংলাদেশের বান্দরবান মনেই হবে না৷ মনে হবে এটা ইউরোপ-আমেরিকার কোন বান্দরবান৷'

১৫১ পঠিত ... ১৭:১২, অক্টোবর ১১, ২০২১

Top