আগামী ২ বছরের মধ্যে দেশের মোট জনসংখ্যাকে ছাড়িয়ে যাবে ফুড ব্লগারের সংখ্যা

৬৮৬৯ পঠিত ... ২১:৪২, জুন ২৬, ২০২১

Food-vlogger

দেশে প্রতিনিয়তই বাড়ছে ফুডব্লগারের সংখ্যা। কোন আসল জরিপ না হলেও ফেসবুক ও ইউটিউব ঘেটে আন্দাজ করা এক আনুমানিক জরিপে দেখা গেছে, আগামী দু বছরের মধ্যে ফুড ব্লগারের সংখ্যা ছাড়িয়ে যাবে দেশের মোট জনসংখ্যাকে।

জরিপটি থেকে পাওয়া অন্য এক পরিসংখ্যানে দেখা যায়, প্রতি বছর দেশের জন্মানো মোট শিশুর মধ্যে প্রায় ৮০ শতাংশ নবজাতক ফুড ব্লগার হওয়ার জিন নিয়ে পৃথিবীতে আগমন করছে। অর্থাৎ, প্রতিদিন ১০০ শিশু জন্মগ্রহণ করলে সেখানে ৮০ জনই কান্নার পরিবর্তে 'ডেলিশিয়াস, জুসি, অ্যামেজিং' শব্দগুলো উচ্চারণ করছে। এর মধ্যে অনেকেই প্রথম শব্দ হিসেবে 'মা' উচ্চারণ না করে 'মাস্ট ট্রাই' উচ্চারণ করছে।

হোটেল ও রেস্টুরেন্ট মালিকদের সাথে কথা বলেও জরিপটির সত্যতা পাওয়া যায়। মোহাম্মদপুর আদাবরের ১৩২ নাম্বার গলির চিপায় ৮ দোকান পরে এক হোটেল মালিকের সাথে কথা বললে তিনি জানান, 'প্রতিদিন হোটেলে কাস্টমার ১০০ জন হলে ফুড ব্লগার আসে ১২০ জন। আগে কম আসতো, সবাইকে খাওয়াইতে পারতাম এখন এত বেশি আসে সামর্থ্যে কুলাইতে পারি না। খারাপ লাগে। খাওয়াইতে তো ইচ্ছে করে মিয়া কিন্তু পারি না। মায়া হয়।' বলতে বলতে চোখের পানি মোছেন তিনি।

উত্তরার এক রেস্টুরেন্ট মালিক দেন অন্য এক তথ্য। তিনি বলেন, 'একটা ফুড ব্লগার আসে। শো কইরা যায়। এরপর তো আসবে কাস্টমার! তাই না! কিন্তু না, এরপর অন্য এক ফুড ব্লগার আইসা বলে, ওমুকে শো করছে, ভাল্লাগছে তাই আমিও আসলাম। বলেন মিয়া, এইটা কোন ধরণের ফাইজলামি!'

এভাবে লাগামহীনভাবে ফুড ব্লগার বাড়তে থাকলে পাশার দান উলটে যেতে পারে বলে জানান সদরঘাটের এক হোটেল মালিক। কিছুটা রাগ নিয়ে তিনি বলেন, 'অবস্থা যা দাঁড়াইছে ফুড ব্লগারদেরও রিভিউ করা লাগবে। ওগোরে সামনে খাড়া করাইয়া আমরা কমু, এই ব্লগারের টেস্ট সেন্স নাই। ভাবে বেশি তয় গায়ে মশলার গন্ধ। ফ্রিতে খাইয়া বেড়ায়। নেগেটিভ রিভিউ দিলাম।'

৬৮৬৯ পঠিত ... ২১:৪২, জুন ২৬, ২০২১

Top