বিয়ের বাজারে হঠাৎ বেড়ে গেছে সিলেটি পাত্র-পাত্রীদের চাহিদা

৮২১ পঠিত ... ২১:৫৪, মে ০১, ২০২১

বিয়ের বাজারে সিলেটিদের সবসময়ই রয়েছে আলাদা কদর। কিন্তু হুট করে সেই চাহিদা পৌঁছেছে একেবারে তুঙ্গে। বিবাহ ইচ্ছুক অনেকেই জানিয়েছেন, সিলেটি পাত্র বা পাত্রী পেলে বিয়ে করবেন। বিশেষ করে ছেলেদের মধ্যে সিলেটের দামান বা জামাই হওয়ার তীব্র ক্রেজ দেখা যাচ্ছে। অনেকেই জানিয়েছেন, সিলেটি বিয়ের গান 'নয়া দামান' পপুলার হওয়ার পর থেকেই এমন অবস্থা।

sylheti-patro-patri

গানটি লিখেছিলেন শ্রীমতি দিব্যময়ী দাস, ১৯৭২-৭৩ সালে। ইয়ারুন নেসা তার কাছ থেকে গানটি নিয়ে সিলেট বেতারে গান। তখন অতটা জনপ্রিয় না হলেও এর আপডেটেড ভার্সন এখন লোকের মুখে মুখে। সেই গান বিয়ের বাজারে এখন শুরু করেছে নতুন উন্মাদনা।

ঘটকরা হাই রেটে সিলেটি পাত্রপাত্রীর সন্ধান দিয়ে বেড়াচ্ছেন, তবুও বাজার আরও গরম। এই গান শুনে সিলেটি মেয়ে বিয়ে করার জন্যে পাগলপ্রায় নোয়াখালীর রবিন। তিনি জানান, 'নয়া দামানকে (জামাই) আসমানের তারা বলতে কাউরে শুনি নাই। এত আদর কইরা বইতে কয় জামাইরে যে এলাকার মানুষ, সেইটা ছাইড়া আমি অন্য কোথাও বিয়ে করার কথা চিন্তাই করতে পারি না।'

এছাড়া সিলেটি ভাষা তার কাছে খুব কিউট লাগে বলেও তিনি লাজুক ভঙ্গিতে জানান।

চাঁদপুরের রুস্তম বলেন, 'এক পা সিলেট মানে আরেক পা লন্ডন, এই কথা শুইনা আইছি সারাজীবন। তখনো এত টানে নাই। এখন মনে হইতেছে লন্ডন যাইতে হইব না, সিলেটেই থাকুম! এমন আদর পাইলে সারাজীবন শ্বশুরবাড়ি থাকতেও আপত্তি নাই...'

মেয়েদের মধ্যেও এই ক্রেজ সমানভাবে বিদ্যমান। কুমিল্লার মেয়ে শারমিন বলেন, 'আমার পালকিতে চড়ে যাওয়ার সখ আর নাই, যেভাবেই হোক আমার সিলেটি ফেরারিতে চড়ে শ্বশুরবাড়ি যাইতে হবে। আপনার কাছে আছে নাকি এমন কেউ? এই এই, আপনি কি সিলেটি? এই যে ভাইয়া শুনেন...'

তবে দেশের অন্যান্য জায়গার পাণিপ্রার্থীদের হতাশ করে এক সিলেটি জানান, 'সিলেটি ছাড়া অন্য কারো সাথেই পরিবার বিয়ে দিতে চায় না। হাইয়েস্ট চিটাগাইংগা। গান শুইনাই খুশি থাকেন।'

৮২১ পঠিত ... ২১:৫৪, মে ০১, ২০২১

Top