প্রেমিকের নাক দিয়ে অনবরত সর্দি, অতঃপর ব্রেকআপ

৩২০ পঠিত ... ১৭:২১, ডিসেম্বর ১৪, ২০২০

এবার এক অদ্ভূত তথ্য জানালেন গোয়ালবাড়ি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও প্রেমিক-প্রেমিকা মাইশা ও নোমান। প্রতি বছর শীত এলেই ব্রেকআপ করে প্রেমিকা মাইশা— এমনই অভিযোগ প্রেমিক নোমানের।

eআরকি টিমের কাছে কাঁদতে কাঁদতে নোমান জানান, 'পাঁচ বছর ধরে প্রেম করতেছি। প্রতি বছর শীত আসলেই মাইশা ব্রেকআপ করে। হাত পা ধরে কান্নাকাটিও করছি, কিন্তু কোনো লাভ হয়...'

এ ব্যাপারে মাইশার কাছে জানতে চাওয়া হলে একটু লাজুক স্বভাবের হওয়ায় প্রথমে ভিডিও কলে আসতে চাননি। পরে ভিডিও অফ রেখে তিনি জানিয়েছেন বিরল তথ্য।
মাইশা বলেন, 'প্রতি বছর শীতের সময় পাক্কা দুই-তিন মাস ঠান্ডা লেগে থাকে নোমানের। সর্দি-কাশি বিহীন একদিনও পাওয়া যাবে না। সবসময়ই নাক দিয়ে পানি পড়তেই থাকে। অনেকসময় রেস্টুরেন্টে খাওয়ার সময় সবার সামনেই ফোৎ ফোৎ করে নাক ঝাড়ে। সর্দিওয়ালা হাত প্যান্টে মুছে, নাহলে আমার জামায়৷ আমি তখন আর খাওয়া শেষ করতে পারি না। বাকিরাও হাসাহাসি করে। কী করবো বলেন?'

এ প্রসঙ্গে আবারও নোমান কাঁদতে কাঁদতে বলেন, 'সর্দি তো কেউ ইচ্ছা করে লাগায় না। এইটা একটা অ্যাক্ট অফ গড। তবুও আমি চেষ্টা করি ঠান্ডা না লাগাইতে। কিন্তু প্রিম্যাচিউর হইছিলাম জন্মের সময়... দোষ কি আমার?'

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত দুইজনের বিএফএফরা (বেস্ট ফ্রেন্ড ফরেভার) মধ্যস্থতা করে সমস্যাটি সমাধানের চেষ্টা করে যাচ্ছেন। তবে নাম প্রকাশ না করার শর্তে নোমানের বিএফএফ জানান, 'আরে ধুর, কিছু বইলা লাভ আছে! প্রতি বছর একই নাটক!'

৩২০ পঠিত ... ১৭:২১, ডিসেম্বর ১৪, ২০২০

Top