অংক মিলে যাওয়ায় অবশেষে তৈলাক্ত বাঁশ বেয়ে উঠতে পারলো বানর

২৫১ পঠিত ... ১৭:১১, জুন ৩০, ২০২০

বানরের সেই বিখ্যাত অংকটির কথা মনে আছে? যেখানে, একটি বানর এত ফুট উচু একটি তৈলাক্ত বাশ বেয়ে উপরে উঠতে লাগল... বানরটি প্রথম মিনিটে এত ফুট উঠে কিন্তু ২য় মিনিটে অত ফুট নিচে নেমে যায়, বাঁশের মাথায় উঠতে বানরটির কত মিনিট সময় লাগবে? অংকটি মনে থাকারই কথা। কারণ, কোনো এক অদৃশ্য কারণে অধিকাংশের এই অংকটি কখনোই মিলতো না। ফলে বানরের ওঠা হত না বাঁশের মাথায়। ওঠা-নামার মারপ্যাচে বানরের জীবন হয়ে উঠতো অতিষ্ঠ।

অবশ্য ওগুলো পুরোনো খবর। নতুন খবর খুবই চমকপ্রদ। গণিতের ইতিহাস বেশ খানিকটা বদলে দিয়ে বানরটি অবশেষে উঠতে পেরেছে বাঁশের মাথায়। অনেক চেষ্টার ফলে অংক মেলাতে পারায় বানরটি হিসাবকর্তাকে অভিনন্দনও জানিয়েছে।

অংকটি যারা বানিয়েছে তাদের প্রতি ক্ষোভ আর তীব্র নিন্দা জানিয়ে বানরটি বলে, 'এরকম ফালতু একটি অংকের কারণে আমি বছরের পর বছর ধরে বাঁশের এ মাথা থেকে ও মাথা ছুটে বেড়াচ্ছি। অথচ কোনোদিন আগায় উঠতে পারিনি।' এ পর্যায়ে বাঁশে তেল মাখানোর দরকারটা কী, ক্ষুব্ধ কন্ঠে বানর গণিতবিদদের প্রতি এমন প্রশ্ন ছুড়ে দেন।

১২ ফুট উঠিয়ে ৮ ফুট নামানোর মানে কী, এমন প্রশ্ন ছুড়ে দিয়ে বানরটি আরো বলেন, 'আমি আর এই বাঁশের উপর থেকে নামছি না। ওঠা-নামা অনেক করেছি। এখন বয়স হয়েছে। এবার একটু রেস্ট নিতে চাই। নহুত বাঁশ গেছে জীবনের উপর।'

কিন্তু আপনার আসলে এই বাঁশটি বেয়ে উঠতে কত সময় লেগেছে, এমন প্রশ্ন করলে বানর চটে গিয়ে বলেন, 'এখন কি আবার আমারে দিয়ে অংক করাইবেন? একটু রেস্ট দেন ভাই, প্লিজ।'

এদিকে বানরটি বাঁশের মাথায় উঠে গেছে শুনে হতাশ হয়েছেন গণিতজ্ঞরা। পাঠ্যপুস্তক কমিটির সদস্যরা এজন্য দুইদিনের শোকপ্রস্তাবও উত্থাপন করেছেন।

২৫১ পঠিত ... ১৭:১১, জুন ৩০, ২০২০

Top