বিশ্বের সেরা ১০০ ভাবমূর্তিওয়ালা ভার্সিটির তালিকায় এলো শাবিপ্রবির নাম

৩৫৮৮ পঠিত ... ২২:৩৪, জুন ১৭, ২০২০

এতদিন বিশ্বের সেরা এক হাজার ইউনিভার্সিটির তালিকাতেও বাংলাদেশের কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম ছিল না। ব্যাপারটা নিয়ে দেশের তরুণ প্রজন্মের মধ্যে অনেক দিন ধরেই কাজ করছিলো এক ধরনের চাপা হতাশা ও ক্ষোভ। তবে এবার যেন সেই হতাশার দিন শেষ হল। সবাকেই আনন্দের জোয়ারে ভাসিয়ে এবার বিশ্বের সেরা ১০০ বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকায় স্থান করে নিয়েছে বাংলাদেশের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (শাবিপ্রবি)। মূলত, একটি বিশ্ববিদ্যালয় ভাবমূর্তি অর্জনে কতটা এগিয়ে আছে তার ভিত্তিতে করা হয়েছে এই বিশেষ তালিকা।

এ বিষয়ে অভিনন্দন জানাতে আমরা দুই কেজি মিষ্টি কিনে গিয়েছিলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মো. ইশফাকুল হোসেনের বাসভবনে। তার কর্মচারি মিষ্টি নিয়ে ভেতরে গেলেন এবং খালি হাতে ফিরে এসে বললেন, 'স্যার একখান মামলার ব্যাপারে উকিলের লগে ভিডু কলে কথা কইতাছে। আপনেরা পরে আইসেন।'

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি অর্জনে স্যারের এই ঐকান্তিক প্রচেষ্টা দেখে আমরা বাকরুদ্ধ হয়ে পড়লাম। কারণ, অর্থনীতি বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী মাহির চৌধুরীর নামে মামলা করার মাধ্যমেই বিশ্ববিদ্যালয়টির ভাবমূর্তির পারদ উঠে যায় অনেকটা উঁচুতে৷ এতেই তারা স্থান পায় সেরা ১০০ ভার্সিটির তালিকায়। আমরা অবাক হয়ে দেখলাম, স্যার লকডাউনে থেকেও তার 'মামলা ফ্রম হোম' চালিয়ে যাচ্ছেন। হয়তো অচিরেই শাবিপ্রবি চলে আসবে সেরা পঞ্চাশে।

ঘটনার গোড়ায় গিয়ে জানা যায়, প্রয়াত একজন সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে নিয়ে ফেইসবুকে ‘আপত্তিকর’ মন্তব্যের অভিযোগ এনে গত সোমবার সিলেটের জালালাবাদ থানায় ওই ছাত্রের বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেন রেজিস্ট্রার মো. ইশফাকুল হোসেন। তবে সেই মামলারও গোড়ায় গিয়ে আরও কাহিনী খুঁজে পাওয়া যায়। মামলাটিকে ‘উদ্দেশ্যপ্রণোদিত’ বলে মনে করছেন শিক্ষার্থীরা। কিছু দিন আগে অনলাইন ক্লাস বর্জন আন্দোলনে জড়িত থাকার কারণে তার ওপর এ মামলা দেওয়া হয়েছে বলে দাবি করছেন তারা (খবর: দেশ রূপান্তর)।

খুব স্বাভাবকভাবেই ঘটনাটি দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে বিশ্বদরবারে। এরকম চাঞ্চল্যকর ঘটনা পৃথিবী ইতিহাসে বিরল।

রেজিস্ট্রার মো. ইশফাকুল হোসেন তার একটি ফেক আইডি দিয়ে আমাদের অভিনন্দনের জবাব দিয়ে বলেন, 'সর্বদা ফেসবুকে চোখ রাখছি। আপত্তিকর স্ট্যাটাসের খোঁজে আছি৷ আর দুই চাইরটা মামলা দিতে পারলে আমাদের এক নাম্বার হইতে টাইম লাগবে না।'

তবে 'লেখাপড়া করে যে গাড়িঘোড়া চড়ে সে' অ্যাংগেলে একটি গুরুত্বপূর্ণ উপদেশ দিতেও তিনি ভোলেননি, 'নিয়মিত অনলাইন ক্লাস করে যে, নিরাপদে থাকে সে।'

৩৫৮৮ পঠিত ... ২২:৩৪, জুন ১৭, ২০২০

Top