সীমিত আকারে শপিং মানে কি শুধু আন্ডারওয়্যার কিনতে হবে? ফেসবুকারদের সীমাহীন ভাবনা

৬৯২ পঠিত ... ১০:১৭, মে ০৬, ২০২০

ঈদের কেনাকাটার জন্য চলমান লকডাউনের মাঝেও আগামী ১০ মে থেকে কথিত 'সীমিত আকারে' শপিংমল খুলে দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে সরকার। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে চলার এমন সময়ে সরকারের এমন সিদ্ধান্ত অনেককেই ভাবনায় ফেলেছে। কিন্তু সরকারের সিদ্ধান্ত নিয়ে ভাবনায় লাভ হবে না দেখে কেউ কেউ ভেবেছেন শুধুই শপিং নিয়ে। ভাবনার বেশিরভাগ জুড়েই ছিলো সীমিত আকারের শপিং ব্যাপারটা আসলে কেমন হবে!

 

সীমিত বলতে অল্প বা কম বুঝে কেউ কেউ ভাবছেন, সীমিত আকারের শপিং মানে কি শুধুই আন্ডারগার্মেন্টস কিনতে হবে? তাছাড়া মোজা, জাঙ্গিয়া, স্যান্ডো গেঞ্জিতে একটা কোয়ারেন্টিন-কোয়ারেন্টিন ব্যাপার হবে। সরকার কি জনগণের মাঝে এমন রূপক অর্থেই সচেতনতা সৃষ্টি করতে চাচ্ছে?

সীমিত মানে তো লিমিটেড মানে ltd! তাহলে কী শুধু নামের শেষে লিমিটেড থাকা দোকানগুলো থেকেই করতে হবে কেনাকাটা? দিনার খান নামের একজন ভেবেছেন এমন। অয়ন ও বিলাশের মতো সুবিধাবাদী কেউ কেউ সীমিত আকার বলতে ভেবেছেন, কেনাকাটা করে হাফ দাম দিলেই হবে কিংবা কাপড় দেখে চলে আসলাম, কেনা লাগবো না। 'নয়ন ক্লথ শপ' নামের দোকান মালিক ফয়সাল নিজের দোকানে কাস্টমার টানার জন্য বললেন, যেসব দোকানের দামে কোন 'আকার' নাই, সেসব দোকান থেকেই করতে হবে সীমিত আকারের শপিং।

সুচয়ন চাকমা কিংশুক নামের একজন সীমিত শপিংয়েও দোকান মালিকদের রাখতে চান করোনামুক্ত। আড়ংয়ের কাছে তিনি প্রশ্ন রাখেন, ট্রায়ালের পর পাঞ্জাবি কি ধুয়ে দিতে হবে? তাহলে তিনি সাথে করে ডিটারজেন্ট নিয়ে যাবেন।

সীমিত আকারে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত মার্কেট খোলার সিদ্ধান্তে অনেকে করোনাভাইরাসের সুস্থতা নিয়েও তুলেছেন প্রশ্ন। এমনই একজন জানালেন, করোনা ভাইরাস মেবি দিনকানা। কেউ কেউ ভাবছেন, করোনাভাইরাসও হয়তো ৯ টা ৫ টার অফিসে আটকা পড়েছেন।

তবে সবচেয়ে কার্যকরী পরামর্শ দিয়েছেন বিশিষ্ট দার্শনিক আহমেদ খান হীরক। তিনি বলেছেন, শপিং মলে ভিড় দেখলে দ্রুত মল ত্যাগ করুন।

৬৯২ পঠিত ... ১০:১৭, মে ০৬, ২০২০

Top