তেলের দাম কমে যাওয়ায় বসকে তেলের বদলে পানি দিচ্ছেন কর্মচারীরা

১৪৪ পঠিত ... ০০:১৬, এপ্রিল ৩০, ২০২০

বিশ্বব্যাপী তেলের দাম নিয়ে হাহাকার চলছে। ব্যারেলের দাম প্রায় শূন্য ছুঁইছুঁই। করোনাভাইরাসের সময়ে বিশ্বব্যাপী লকডাউনে তেলের ব্যবহার নেমে এসেছে প্রায় শূন্যে।

চাহিদা কমে যাওয়ায় দামও পড়তে শুরু করেছে হু হু করে।

কিন্তু বাংলাদেশে দেখা গেলো সম্পূর্ণ উলটো চিত্র। তেলবাজ কর্মকর্তা কর্মচারীরা তেল যতোক্ষণ জলের দামে বিক্রি হচ্ছিলো, তখনও সমানে বসকে তেল দিয়ে গেছেন। কিন্তু তেলের দাম যখন পানির চেয়েও কম হয়ে গেলো, এবার তারা বিপদে পড়েছেন। বসকে তো আর যেন তেন দামের জিনিস দেয়া যায় না!

তাই এবার তারা বসকে দেয়া শুরু করেছেন পানি। বস সমাজও প্রথম কিছুদিন অভ্যাসমতো তেল না পেয়ে অস্বস্তিতে ভুগছিলেন। কিন্তু তারাও যখন দেখলেন এই জিনিসের দাম এখন তলানিতে, তখন সাগ্রহে এই পানি মারাকেই বরণ করে নিলেন।

এ ব্যাপারে নাম না প্রকাশ করার শর্তে নিখিল বাংলাদেশ কর্মচারী সমিতির একজন আহবায়ক বলেন, 'বস হচ্ছেন আমাদের মাথার মুকুট। এই মুকুটকে আপনার নিয়মিত তেল-পালিশ দিয়ে চকচকে করে রাখতে হবে। তারা খুশি তো আপনার জীবন ফুরফুরা। এই কমে যাওয়া তেল দিয়ে তো আর বসকে পালিশ করতে পারি না। তাই এখন তেলের চেয়েও দামী পানি দিয়ে জল-পালিশ পদ্ধতি চলছে।'

শুধু অফিস আদালত না, টিভি চ্যানেলে, খবরের পাতায় বিবৃতিতে, অনলাইনে সহমত ভাইদের আড্ডাতেও তেলের এই পড়তি দাম নিয়ে হাহাকার শোনা যায়। অতি পরিচিত তেল কচলে কচলে যারা হাতের রেখা উঠিয়ে ফেলেছিলেন, অনেকেই এখন পানি দিয়ে হাত কচলাচ্ছেন। এতে হাতের রেখা অনেকের ফিরে ফিরে আসছে। এ ব্যাপারে বিভিন্ন মন্ত্রনালয়ে ঘোরাঘুরি করা একজন তেলবাজকে জিজ্ঞেস করায় তিনি অবশ্য তেলের অভাবে হাতের রেখা ফিরে আসার ব্যাপারটা অস্বীকার করেন। তিনি বলেন, পরিবেশ দূষণ কম হবার কারণে অনেক কিছুই ফিরে ফিরে আসছে। হাতের রেখাও এ কারণেই ফিরে এসেছে।

তবে এ ব্যাপারে একজন বস বলেন, 'ভাইরে, তেল যে শুধু আমরা খাই তা না। বসেরও বস থাকে। জায়গা মতো আমাদেরও তেল দিতে হয়। দাম পড়ে যাওয়ায় আমরা যেমন তেলের বদলে পানি খাচ্ছি, আমাদের বসকেও এখন আমরা পানিই দিচ্ছি।'

তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, 'অচিরেই তেলের দাম আবার স্বাভাবিক জায়গায় ফিরে আসবে। তখন পানির বদলে তেলবাজরা হাতে তুলে নেবে তেল! তৈলাক্ত মর্দনে আবার সিক্ত হবে চারপাশ। চুঁইয়ে চুঁইয়ে গড়িয়ে গড়িয়ে আবার বসদের তেলা মাথা থেকে তেল গড়িয়ে পড়বে।'

দৃপ্ত কণ্ঠে তিনি বলেন, 'তেলে আর জলে কখনও মিশ খায় না!'

১৪৪ পঠিত ... ০০:১৬, এপ্রিল ৩০, ২০২০

Top