করোনা মোকাবেলায় সব বৈরিতা ভুলে এক হলো ছাত্রলীগ, ছাত্রদল ও ছাত্রশিবির

১০৮৯ পঠিত ... ১৯:১৬, এপ্রিল ১৬, ২০২০

করোনা মোকাবেলায় সরকারের বিভিন্ন মহলে সমন্বয়হীনতা থাকলেও এক হয়ে কাজ করছেন দেশের তিনটি বড় ছাত্র সংগঠন ছাত্রলীগ, ছাত্রদল ও শিবির। গত কিছুদিন ধরেই ফেসবুকে ত্রাণ বিতরণের একটি বেওয়ারিশ ছবি ঘুরে বেড়াচ্ছে। ছবিটিকে কেউ বলছেন ছাত্রলীগের ত্রাণ বিরতণের ছবি, কেউবা বলছেন ছাত্রদলের ত্রাণ বিতরণের ছবি, কেউ বলছেন শিবিরের ত্রাণ বিরতণের ছবি। তিন পক্ষই একই ছবিকে ভিন্ন ভিন্নভাবে নিজেদের বলে দাবি করায় ফেসবুকবাসী ধরে নিয়েছে, এক হয়ে গেছেন তারা।

তিন দলের এই মিলনমেলা সম্পর্কে জানতে চাইলে ছাত্রশিবিরের কোয়ারেন্টিন শাখার এক নেতা উত্তেজিত হয়ে বলেন, 'কিসের মিলনমেলা! এইখানে আমরা নাই। এইখানে কারো হাতে চাপাতি দেখছেন? তাইলে? তাছাড়া এইটা ত্রাণ বিতরণের ছবিও না। খুঁইজা দেখেন, ভ্যানের ওই শাক দিয়া ত্রাণের চুরি করা চাল ঢেকে রেখেছে ছাত্রলীগ।'

বেশ হতাশ হয়ে একই বিষয় বিএনপির ইতালি শাখার কাছে জানতে চাইলে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে তিনি বলেন, 'এখানে আসলেই ছাত্র শিবির নাই। ওরা কিছুতেই থাকে না। আমরা আর ছাত্রলীগ থাকলেও কাজ আমরাই বেশি করেছি। ছাত্রলীগ শুধু ময়মনসিংহে ছবিটা পোস্ট করছে। আর আমরা ইতালি থেকে পোস্ট করে ইতালির নাগরিকদের মনও জয় করেছি। ঈদের পরের আন্দোলনে ইতালিও আমাদের সাথে যোগ দিবে।'

একই বিষয় জানতে চাওয়া হলে ছাত্রলীগের এক বহিষ্কৃত নেতা ছাত্রদল ও শিবিরের ত্রাণ বিতরণের খবরকে মিথ্যা দাবি করেন। এভাবে ক্রেডিট চুরি থেকে বাঁচার জন্য প্রতিটি সংগঠনের আলাদা আলাদা ইউনিফর্ম করার দাবি তুলে বিড়বিড় করে বলেন, 'ইউনিফর্ম থাকলে ওদের খোঁজখবর নিতেও সুবিধা হবে।'

তিন দলের পক্ষ থেকে তিন রকম বক্তব্য আসলেও ছবিটি নিয়ে জনমনে উত্তেজনা দেখা গেছে। বাস্তবে না হোক, ভার্চুয়ালি হলেও দেশের এই বড় তিনটি সংগঠনের এক হয়ে কাজ করায় বেশ আনন্দিত সবাই।

তবে নিজেদের কোন ছাত্র সংগঠন না থাকায় ফ্রিতে পাবলিসিটি পাওয়ার ও অন্যদেরকে পল্টি মেরে ক্রেডিট নেয়ার এমন দারুণ সুযোগ হাতছাড়া করায় বেশ দুঃখ প্রকাশ করেছে জাতীয় পার্টি। একজন কর্মী হতাশ গলায় বলেন, 'আমগো তো ছাত্রসংগঠন করতে গেলেও দেখবেন তিনটা করা লাগবে, জাতীয়ছাত্রদল (রওশন), জাতীয় ছাত্রদল (কাদের), জাতীয় ছাত্রদল (রাঙ্গা), অত বাজেট কই বলেন?'

১০৮৯ পঠিত ... ১৯:১৬, এপ্রিল ১৬, ২০২০

Top