বৈজ্ঞানিক গবেষণা ছেড়ে টেকনাফের এক সেলুনে চুল কাটছেন নিউটন

৬৯৫ পঠিত ... ২০:২৭, ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২০

স্যার আইজ্যাক নিউটন! জীবন যার বৈচিত্রে ভরা! বৈজ্ঞানিক গবেষণার জন্য তো বিখ্যাত ছিলেনই। বিখ্যাত ছিলেন ডিনামাইট শেপের ঢেউ খেলানো অনন্য চুলের কাটিং-এর জন্যও। আপনি হয়তো জানেন না, নিউটনের এই ডিনামাইট শেপের ঢেউ খেলানো চুলের কাট তিনি নিজেই দিতেন (এই তথ্য কেউ জানে না, এমনকি নিউটনের পরিবারও না, নিউটনও কোন দিন ফট করে এই কথাটি কোথাও বলেননি)।

বিজ্ঞানী নিউটনের প্রতিভা বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়লেও তার চুল কাটতে পারার প্রতিভা তেমন একটা ছড়ায়নি। এই বিষয়ে একটা বিশেষ দুঃখবোধও ছিলো নিউটনের মনে। সেই দুঃখবোধ কাটিয়ে উঠতে, চুল কাটতে পারার মতো অনন্য প্রতিভা ছড়িয়ে দিতে নিউটন বেছে নিয়েছেন বাংলাদেশকে। সম্প্রতি বাংলাদেশের টেকনাফ উপজেলায় ‘নিউটন সেলুন’ নামে নিউটনের একটি সেলুন দোকানের সন্ধান মেলে।

ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া নিউটন সেলুনের সাইনবোর্ড থেকে গতিসূত্র প্রয়োগ করে আমরা নিউটনের সেলুন দোকানের ঠিকানা উদ্ধার করি। নিউটনের সেলুন ব্যবসা ও এর উদ্দেশ্য সম্পর্কে জানতে আমাদের বিশেষ প্রতিনিধি, নিউটনের শিক্ষক স্যার আইজ্যাক ইব্রাহীমস্টাইনকে পাঠাই। কিন্তু নিজের শিক্ষককে পাওয়া মাত্রই নিউটন স্যারের সেবায় লেগে যাওয়ায় আমাদের তথ্য পেতে একটু দেরি হয়। 

পরবর্তীতে নিউটন সেলুন নিয়ে তার স্বপ্নের কথা আমাদের জানান। জানান চুল কাটায় বৈচিত্র্য নিয়ে আসার জন্যই এমন অসাধারণ উদ্যোগের কথা। নিউটনের এই সেলুনটি অন্যান্য সেলুন থেকে কিছুটা আলাদা। এখানে বিজ্ঞানভিত্তিক উপায়ে চুল কাটা হয়। শিল্প ও বিজ্ঞানের সাথে একটা বিশেষ সেতু স্থাপনও নিউটনের সেলুন খোলার উদ্দেশ্য বলে জানান তিনি।  

কেমন বিজ্ঞানভিত্তিক উপায় জানতে চাইলে নিউটন আমাদের বলেন, 'আপনারা হয়তো খেয়াল করলে দেখবেন আমার সেলুনটি দ্বিতীয় তলায়, সেলুনের সাইনবোর্ডও দ্বিতীয় তলায়। আমার সেলুনে আসতে হলে ও সেলুনের সাইনবোর্ডের দিকে তাকাতে হলে  অবশ্যই অভিকর্ষজ ত্বরণের বিরুদ্ধে যেতে হবে। সেলুনে উঠতে উঠতেই কাস্টমার বুঝতে পারবে অভিকর্ষজ ত্বরণের সংজ্ঞা। চুল কাটার পর সেই চুল কেমন গতিতে মাটিতে পড়ছে তাও হিসেব করে দেখানো হবে। ফলে কাস্টমার নিজের চুলের উপর পৃথিবীর আকর্ষণ বলের প্রভাবও জানতে পারবে।'

নিজের সেলুনের ফিচার সম্পর্কে নিউটন আরো বলেন, ‘এখানে আমার তিনটি গতিসূত্র ব্যবহার করে কাটা হবে চুল। কাস্টমার বুঝতে পারবে, বাহ্যিক বল প্রয়োগ কীভাবে সুষম গতিতে বাড়তে থাকা চুল-দাঁড়িকে থামিয়ে দিতে পারে। বডি মাসাজের ক্ষেত্রে মানা হবে গতির তৃতীয় সূত্র। প্রতিটা থাপ্পড়ে কী পরিমাণ এনার্জি লস হয়, কী পরিমাণ আরাম (বিশেষ ক্ষেত্রে ব্যথা) পাওয়া যায়  তা একদম কড়িতে কড়িতে হিসেব করে দেখানো হবে।’

চুল কাটা শিল্পে নরসুন্দর ও কাস্টমারের মনের কথাকে একবিন্দুতে আনতে মেশিন লার্নিং সিস্টেম নিয়ে আসবেন বলেও জানান নিউটন। নিউটন বলেন, ‘চুল কাটা নিয়ে কাস্টমারদের বহু আফসোসের কথা শুনি। কাস্টমার বলে একরকম, নরসুন্দর চুল কাটে সম্পূর্ণ অন্যরকম করে। কাস্টমারদের এইসব হতাশা ও অসুবিধা থেকেও মুক্তি দিতে চাই আমি।’

নিউটনের এমন উদ্যোগের জন্য তাকে সম্মান প্রদর্শন করতে আমরা ‘স্যালুট স্যার আইজ্যাক নিউটন’ বলে দাঁড়িয়ে গেলে স্যার ইব্রাহীমস্টাইন আমাদেরকে ভিডিও কলে ধমক দিয়ে বলেন, ‘হি ইজ ইসহাক নিউটন, আমার ছাত্র! নট আইজ্যাক নিউটন!’

৬৯৫ পঠিত ... ২০:২৭, ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২০

Top