কুড়িগ্রামে শুরু হতে যাচ্ছে 'দুলাভাই মেলা', দেশের বিভিন্ন প্রান্তের শালীরা প্রস্তুত

২২৯৩ পঠিত ... ২১:০৩, জানুয়ারি ১২, ২০২০

গ্রামীণ ঐতিহ্য ধারণ করে ব্যতিক্রমী নানান আয়োজনে কুড়িগ্রাম শহরের খলিলগঞ্জ স্থানীয় বাজারে আয়োজন করা হচ্ছে ৫ দিনব্যাপী দুলাভাই মেলা। আগামী ১৯ থেকে ২৫ জানুয়ারি পর্যন্ত চলবে এই মেলা।

অসাধারণ ও ব্যাতিক্রমী এই মেলায় নানান রঙ্গের নানান ঢঙের দুলাভাই দেখার জন্য ও নিজেদের দুলাভাইকে প্রদর্শনী করানোর জন্য দেশের নানান প্রান্তের শালীরা ইতোমধ্যে প্রস্তুত হতে শুরু করেছেন।

এদিকে শালীদের গ্যাড়াকলে পড়ে দেশের দুলাভাই সমাজ ব্যাপক আতঙ্কের মধ্যে দিন কাটাচ্ছে। মেলার জন্য সঠিকভাবে প্রস্তুত করার লক্ষ্যে শালীরা এরই মধ্যে দুলাভাইদেরকে নিজেদের কব্জায় নিয়ে নিয়েছে। মেলা শুরু হওয়া পর্যন্ত দেশের সকল দুলাভাইদের খাওয়া-দাওয়া, চলাফেরা, মোট কথা সবরকমের নড়নচড়ন চলছে শালীদের নির্দেশে।

নিজের দুলাভাইকে মেলার জন্য প্রস্তুত করতে করতেই শালী সমাজের এক প্রতিনিধি জানান, 'আমার দুলাভাই সবার সেরা হবেই। শুধু ঠোঁটটা নিয়ে একটু চিন্তায় আছি। সিগারেট খেয়ে খেয়ে ঠোটঁটারে কালো বানিয়ে ফেলেছে। তাও টেনশন নাই। ঠোঁটে সরিষা বাটা লাগাইয়া দিছি। আশা করতেছি সরিষার ঝাঁঝে লাল হয়ে যাবে।'

মুখে ফেসওয়াশ, ঠোঁটে সরিষা বাটার আস্তরণ ও চোখে শশা নিয়ে বসে থাকা এই দুলাভাই জানান, 'এ কী আলামত ভাই, মুখের মধ্যে লাগাইছে লাগাইছে, তাই বলে ঠোঁটেও! ভাই সিগারেট খাইতে পারি না দুইদিন। আমাকে নাকি এভাবে আরো ৫ দিন রাখা হবে। এ কেমন মেলা?'

কাঁদো কাঁদো গলায় এই দুলাভাই আমাদের প্রতিনিধির কাছে একটা সিগারেট চাইলে আমাদের প্রতিনিধি একটি সিগারেট এগিয়ে দেন। সঙ্গে সঙ্গে রুদ্রমূর্তি ধারণ করে জনৈক শালী বলেন, 'ওই মিয়া! আপনার শালীর নাম্বার দেন। আপনারে ছাইড়া রাখছে ক্যান, নইলে এখানে বসেন। আপনারেও সাজাইয়া দেই।'

এমন অতর্কিত হামলায় আমাদের প্রতিনিধি খবর সংগ্রহ বাদ দিয়ে সেখান থেকে পালিয়ে অন্য এক দুলাভাইয়ের বাড়িতে যান।

সারা শরীরের অনাবৃত অংশে পিংক কালারের লিপস্টিক লাগিয়ে বসে থাকা এক দুলাভাইকে দেখিয়ে তার শালী বলেন, 'দুলাভাইরে পিংক কালার করে রেডি করতেছি! এমন একটা আয়োজন, দুলাভাইরে নিজের মনের মতো কালারে না সাজাইলে হয় বলেন। আপনিও আসেন, আপনারে ফিরোজা কালারের লিপস্টিক লাগাইয়া দেই।'

আবারো এমন অতর্কিত আক্রমণে আমাদের প্রতিনিধি দৌঁড়ে অফিসে চলে আসেন। অফিসে আসা মাত্রই তাকে প্রস্তুত করার জন্য শালী সমাজ সাজঘরে নিয়ে যান।

তবে সারাদেশের দুলাভাইদেরকে বাঁচাতে এই মেলায় মূলত দুলাভাই প্রদর্শনী না হয়ে কুটির শিল্প পণ্য প্রদর্শনী, মাছ প্রদর্শনী, বৃক্ষ মেলা, বিনামূল্যে চিকিৎসা সহ গ্রামীন আরো নানান ঐতিহ্য তুলে ধরা হবে; eআরকির পক্ষ থেকে শালী সমাজকে এমন সংবাদ জানালে তারা বলে, 'আপনারা যে eআরকি করেন এইটা আমরা জানি, eআরকিতে কান দিচ্ছি না গো। প্রদর্শনী থেকে বাদ যাবে না একটি দুলাভাইও।'

এই পর্যায়ে সেই শালী তার এক বড় বোন এখনও অবিবাহিত আছে সেই তথ্য উদ্দেশ্যমূলকভাবে জানালে আমাদের প্রতিনিধি দ্রুত ছুটে পালিয়ে যান।

২২৯৩ পঠিত ... ২১:০৩, জানুয়ারি ১২, ২০২০

Top