১০০ হাঁস মারার অভিযোগে আফ্রিদির বিরুদ্ধে মামলা করতে পারে পাখি সংরক্ষণ অধিদপ্তর

৪০৬ পঠিত ... ২১:২৮, ডিসেম্বর ১২, ২০১৯

আজ বিপিএলে রাজশাহী রয়্যালসের বিপক্ষে নিজের প্রথম ম্যাচের প্রথম বলেই ডাক মেরেছেন বিখ্যাত ডাকবাবা, হাঁসদের ত্রাস শহীদ আফ্রিদি। হাঁস মারা তো তার জন্য খাওয়া-দাওয়া-ঘুমানোর মতো নিত্তনৈমিত্তিক ঘটনা, কতই তো মেরেছেন নিজের 'বর্ণাঢ্য' ক্যারিয়ারে! কিন্তু এই ডাকের মাহাত্ম্য, স্বীকৃত ক্রিকেটে এটাই আফ্রিদির শততম ডাক! এই নিয়ে শততম বার শূন্য রানে আউট হলেন তিনি।

প্রিয় তারকার এই বিরল অর্জনে আনন্দিত বিশ্বব্যাপী আফ্রিদিভক্তরা। তবে সবাই যে আনন্দিত, এমনটা একেবারেই বলা যাবে না। এই যেমন ডাকবাবার এই রেকর্ডকে হাঁসদের জীবনের ওপর হুমকিস্বরূপ বলে আখ্যায়িত করেছে জাতীয় পাখি অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা। ক্ষুব্ধ হয়ে এক কর্মকর্তা বলেন, 'অতিথি পাখি হিসেবে যেসব হাঁস দেশে আসে, তাদের শিকার করা শাস্তিযোগ্য অপরাধ। অথচ আফ্রিদি দিনের পর দিন হাঁস মেরে যাচ্ছেন। তারমধ্যে বেশিরভাগ সময় তো সেগুলো বিরল প্রজাতির মূল্যবান গোল্ডেন ডাক বা সোনালী হাঁসও হয়ে থাকে। এমনকি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েও তিনি থামলেন না! ১০০টা হাঁস মারা, ভাভা যায় এগ্লা? এর একটা বিহিত করতেই হবে।'

এভাবে হাঁস মারা না থামালে আফ্রিদির বিরুদ্ধে পশুপাখি আইনে মামলা করা হবে বলেও জানায় সংগঠনটির কর্তাব্যক্তিরা। এ বিষয়ে হাঁসদের কাছে জানতে চাওয়া হলে জনৈক সোনালী হাঁস eআরকিকে জানায়, 'আফ্রিদি খেলতে নামলেই আমরা ভয়ে থাকি। কখন না জানি মারা যাই। নিজে না মরলেও আছে আপনজন হারানোর ভয়। প্রতিবার এই টেনশন আর নিতে পারছি না। আফ্রিদির বিচার চাই। প্যাক প্যাক প্যাক প্যাক!'

অবশ্য আফ্রিদির বেশ কিছু ভক্ত ব্যাপারটাকে তাদের প্রিয় খেলোয়াড়ের একটি সিগনেচার স্টাইল হিসাবেই ধরে নিয়েছেন। এরকমই একজন eআরকিকে বলেন, 'সব খেলোয়াড়রা তো মাঠে নামলে শুধু হাফ সেঞ্চুরি আর সেঞ্চুরি মারে। জ্বলজ্যান্ত হাঁস কয়জন মারতে পারে? আফ্রিদি এটা পারে। শচীনের একশ সেঞ্চুরির রেকর্ড থেকে আফ্রিদির একশ ডাকের রেকর্ডের দাম কম না।'

কীভাবে দাম বেশি জিজ্ঞেস করলে তিনি বলেন, 'আফ্রিদি ভাইয়ের মারা হাঁসগুলো বাজারে বিক্রি করতে নিলে একটাও এক হাজারের কম দাম হবে না। উনি মারেনই সব মাংসওয়ালা হৃষ্টপুষ্ট হাঁস। শচীনের সেঞ্চুরি বেচতে পারবেন একটাও? দাম পাইবেন?'

তবে আজ বিপিএলে একশ ডাক মারার রেকর্ড করার পর একশ সেঞ্চুরির মালিক শচীন টেন্ডুলকার তার এক ফেক আইডি থেকে আফ্রিদিকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। নিজের অভিনন্দন বার্তায় লিটল মাস্টার টুইট করেছেন, 'তোমার মারা হাঁসগুলো নিয়ে বাসায় এসো। বারবিকিউ পার্টি করবো।'

টুইটের রিপ্লাইতে অবশ্য আফ্রিদি বলেন, তার মারা হাঁসগুলো তিনি তার ফ্যানদের সাথে ভাগ করে খেতে চান।

৪০৬ পঠিত ... ২১:২৮, ডিসেম্বর ১২, ২০১৯

Top