বলিউড তারকা আয়েশা টাকিয়ার বিরুদ্ধে মামলা, নিষিদ্ধ করার দাবি

৫৮৭১ পঠিত ... ২০:৩৬, ডিসেম্বর ০৫, ২০১৯

বলিউডের জনপ্রিয় নায়িকা আয়েশা টাকিয়া। প্রথমে টারজান ও পরে ওয়ান্টেড সিনেমার মাধ্যমে আলোচনায় আসলেও বেশ কয়েক বছর বলিউডে এই হট এন্ড স্পাইসি নায়িকাকে তেমন একটা দেখা না যাওয়ায় তিনি আবারো আলোচনার বাইরে চলে যান। তবে অত্যন্ত ভিন্ন একটি কারণে অতি সম্প্রতি এই নায়িকা আবারো এসেছেন আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে।

ঘটনার শুরু ভারতের ঝাড়খন্ড এলাকার একটি প্রত্যন্ত গ্রাম থেকে। আয়েশা নামের এক মেয়ে ঝাড়খন্ডের ওই গ্রামে বসবাস করেন। আধুনিক সুযোগ সুবিধা ও কোন ধরনের ইন্টারনেট সংযোগ না থাকায় ঝাড়খন্ডের আয়েশা এতদিন ছিলেন আধুনিক দুনিয়ার একদম বাইরে। কিন্তু মোদীজির উন্নয়নের চোটে সম্প্রতি ওই অঞ্চলে ইন্টারনেট সংযোগ আসায় মিডলইস্টে থাকা বন্ধুদের সঙ্গে যোগাযোগের জন্য আয়েশা নকিয়ার আশা সিরিজের একটি মোবাইল দিয়ে ইমো একাউন্ট খোলেন। বিপত্তিটা ঘটে সেখানেই।

ইমো একাউন্টে ‘সমুদ্র সৈকতে এ কেমন ছবি তুললেন আয়েশা টাকিয়া’ শিরোনামে একটি লিংক আসলে নিজের নামের সাথে মিল থাকায় কৌতূহলবশত তিনি উক্ত লিংকে ঢোকেন। ঢুকেই নানা অ্যাঙ্গেলে ঘুরিয়ে ফিরিয়ে, জুম করে আয়েশা টাকিয়ার ছবিগুলো দেখতে থাকেন। নিজের নামের একটা মেয়ের এমন স্বল্পবসনা ছবি দেখে ঝাড়খন্ডের আয়েশা অনুভূতিতে প্রচন্ড রকমের আঘাত পান। তিনি এরপর মানসিকভাবে এতটাই বিপর্যস্ত হয়ে পড়েন যে, হাতে থাকা 'আশা' সিরিজের ফোনটিকেও তিনি ছুড়ে মেরে ভেঙে ফেলেন। অতঃপর এলাকাবাসীর সহযোগিতায় বলিউডের নায়িকা আয়েশা টাকিয়াকে নিষিদ্ধ করার দাবি তুলে মামলা করেন তিনি। খবর: হিন্দুস্থান টাইমস।

মামলার অভিযোগপত্রে ঝাড়খন্ডের আয়েশা বলেন, 'আমি এতদিন আমার নামে আর কী কী আছে কিছুই জানতাম না। অনেক ছেলেই আমাকে দেখলে টাকিয়া টাকিয়া বলে খেপাতো, কিন্তু আমি কখনোই কিছু বুঝতে পারিনি। কিন্তু আজ আমি যা দেখলাম, তা সত্যিই মেনে নিতে পারছি না। আমার নাম নিয়ে দুনিয়াতে বেঁচে থাকা একটা মেয়ে এমন স্বল্পবসনা হয়ে রাস্তাঘাটে ছবি তুলেছে, আবার সেই ছবি আমার মোবাইলেও এসেছে! এতে অবশ্যই আমাকে অবমাননা করা হয়েছে। আমি এর সুষ্ঠু বিচারের পাশাপাশি আয়েশা টাকিয়া নামের ওই নির্লজ্জ, বেহায়া, গরিব মেয়েকে নিষিদ্ধ করার দাবি জানাচ্ছি।'

এ সম্পর্কে ঝাড়খন্ডের আয়েশার আইনজীবী জানান, 'আয়েশার অভিযোগ তো খুবই যৌক্তিক। তার নামেরই আরেকজন কেন এসব করবে! এতে অবশ্যই আয়েশা এবং আয়েশার নামের অবমাননা হয়েছে, তাকে হেয় করা হয়েছে। এটার একটা বিহিত হওয়া দরকার। আশা করি, আদালতে আমরা ন্যায়বিচার পাবো।'

মামলার খবরে নায়িকা আয়েশা টাকিয়ার প্রতিক্রিয়া এখনো জানা যায়নি। তবে নির্ভরযোগ্য সূত্রে খবর পাওয়া গেছে, পরিস্থিতির উন্নতি না হলে শীঘ্রই তিনি নাম বদলে ফেলতে পারেন।

৫৮৭১ পঠিত ... ২০:৩৬, ডিসেম্বর ০৫, ২০১৯

Top