পাঁচদিনের গোলাপি টেস্ট আড়াই দিনে শেষ হওয়ায় ভোক্তা অধিদপ্তরে মামলা করবেন দর্শকরা

৪২৫ পঠিত ... ১৫:০৪, নভেম্বর ২৪, ২০১৯

কলকাতার ইডেন গার্ডেনে বাংলাদেশ বনাম ভারতের মধ্যে প্রথমবারের মতো গোলাপি বলে দিবারাত্রির টেস্ট ম্যাচ শুরু হয়েছিলো ২২ নভেম্বর। বাংলাদেশ ও ভারত দুদলের জন্যই এটি গোলাপি বলে প্রথম টেস্ট হওয়ায়, কলকাতার মুখ্যমন্ত্রী ও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতি, কলকাতা ও ইডেন গার্ডেনের সাজসজ্জ্বা মিলিয়ে উন্মাদনা ছিলো চরমে। ম্যাচের দুই দিন আগেই প্রথম চার দিনের টিকেট শেষ হয়ে যায়। ম্যাচটি কলকাতা হওয়াতে অনেক বাংলাদেশি দর্শকও গ্যালারিতে বসে খেলা দেখার জন্য কলকাতা গিয়েছেন, কেউ কেউ প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

তবে সবাইকে হতাশ করে দিয়ে মাত্র ২ দিনের অল্প একটু বেশি সময়ে শেষ হয়ে গেছে 'ঐতিহাসিক' গোলাপি টেস্ট! এমন পরিস্থিতিতে বেশ মুষড়ে পড়েছেন ভারত ও বাংলাদেশের দর্শকরা। ক্রিকেটারদের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ তুলে ভোক্তা অধিদপ্তরে মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছন অনেকে। তৃতীয় দিনের খেলা দেখবেন বলে আজ দুপুরে কলকাতায় পৌঁছানো আমাদের প্রতিনিধিকে এক ভারতীয় সমর্থক বলেন, 'দাদা, এই তৃতীয় দিনের খেলা দেখবো বলে গোলাপি জামা কিনেছি। আমি ছেলে মানুষ। গোলাপি জামা পরলে ছেলেপেলেরা ক্ষ্যাপায়। তাও কিনছি! এখন আমার খেলাও গেলো, পঁচানিও খাওয়া লাগবে। এই তোমরা এটা কী করলে গো দাদা!'

গালে গোলাপি রঙ করে, ইন্ডিয়ান অ্যাম্বাসির সামনে ভিসার জন্য লাইনে দাঁড়ানো এক কাপল জানান, 'গাজি টিভির ক্যামেরা ম্যানের ক্যামেরায় ধরা খেয়ে ভাইরাল হওয়ার জন্য আমরা দুজনে চেহারা প্লাস্টিক সার্জারি করে গোলাপি কালার করেছি। তৃতীয় দিন থেকে খেলা জমে উঠবে বলে টিকেটও কেটেছি তৃতীয়, চতুর্থ আর পঞ্চম দিনের। এখন দেখি কলকাতা পৌছানোর আগেই খেলা একেবারে জমে গিয়ে থেমেই গিয়েছে। আমাদের কাপল ট্যুরটাও আর হলো না, ভাইরাল হওয়া হলো না। খেলার অবস্থা দেখে বাসা থেকে দু-জনকেই ফোন দিয়েছে বাসায় চলে যেতে! মামলা কয়টা করবো বুঝতেছি না!'

তবে দুদেশের দর্শকরা আসলে বুঝে উঠতে পারছে না মামলাটি কার নামে করবে! বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের নামে নাকি ভারতের বোলারদের নামে। টসে জিতেও ভারতকে ব্যাটিং না দেয়ার জন্য বাংলাদেশিরা বাংলাদেশ অধিনায়কের বিরুদ্ধে মামলা করতে চান। এদিকে ভারতীয় দর্শকরা টসে হেরে যাওয়ার অপরাধে মামলা করতে চান বিরাট কোহলির বিরুদ্ধে। কেউ কেউ গোলাপি বলের বিরুদ্ধেই মামলা করার ব্যাপারে মত দেন। কারো কারো ধারণা মামলা করা উচিত পিংক ফ্লয়েডের নামে। গোলাপি বলের প্রস্তুতি স্বরূপ ক্রিকেটাররা পিংক ফ্লয়েডের বিষণ্ণ গানগুলো শুনেই এই আকামটা করেছে।

তবে এই বিষয়ে ইডেন কলেজে পড়া মমিনুলের (ফেক আইডি) মতামত জানতে চাইলে তিনি জানান, কলকাতায় নামার সাথে সাথেই দাদারা জিজ্ঞেস করে ‘দাদা, খেয়ে এসেছেন নাকি গিয়ে খাবেন!’ এমন অপমান সহ্য করতে পারিনি বলে না খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। কিন্তু পরে দর্শকদের কথা বিবেচনা করে দুই-দিন খেলেছি! এটাই অনেক। দর্শকরা ভোক্তা অধিকারে মামলা করলে আমরাও আমাদের উপর বিশ্বাস স্থাপন করে আমাদের উপর চাপ সৃষ্টি করার অপরাধে দর্শকদের বিরুদ্ধে মামলা করে দিবো!

তবে অন্যভাবেও ভাবছেন কিছু দর্শক। বাংলাদেশ থেকে গোলাপি টেস্ট দেখতে কলকাতায় আসা এক দর্শক জানালেন পজিটিভ কিছু, 'ভাই এই টেস্ট তো ভাবছিলাম দেড়দিনে শেষ হইব। কালকে সন্ধ্যায় অলআউট না হইয়া যে এইটা পরেরদিন দুপুর পর্যন্ত নিতে পারছে, এইটাও আশা করি নাই। টিকিট কাটছিলাম থার্ড দিনের, আদৌ মাঠে না আইতে পারলে কি বেইজ্জতিটা হইত বলেন?'

৪২৫ পঠিত ... ১৫:০৪, নভেম্বর ২৪, ২০১৯

Top