ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সবরকম ভর্তি পরীক্ষায় 'ডাকসু কোটা' চায় শিক্ষার্থীরা

১৬৮ পঠিত ... ২০:৪১, সেপ্টেম্বর ০৮, ২০১৯

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচনে অংশ নেওয়া ৮ ছাত্রনেতার (৭ জন পরে নির্বাচিত) ছাত্রত্ব নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। ছাত্রত্ব শেষ হয়ে যাওয়ায় চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে ডাকসু নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পরপর তারা একটি সান্ধ্যকালীন মাস্টার্স প্রোগ্রামে ভর্তি হন। অথচ এই প্রোগ্রামের ভর্তি প্রক্রিয়া শেষ হয়ে গিয়েছিল জানুয়ারি মাসেই। তাই নির্বাচনে অংশ নিতে লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা ছাড়াই উপাচার্য ও ডিনের সুপারিশে তারা ভর্তি হয়েছিল ঐ প্রোগ্রামে। এদের সবাই ছাত্রলীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা ছিলেন এবং ভর্তির পর মাস্টার্সের কোন ক্লাস বা পরীক্ষায় তাদের উপস্থিত থাকার প্রমাণ মেলেনি। খবর: প্রথম আলো। 

এই খবরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা দাবি তুলেছেন বিশেষায়িত ‘ডাকসু কোটা’র। ডাকসু নির্বাচন করতে ইচ্ছুক এমন কাউকে এই কোটার মাধ্যমে পরীক্ষা ছাড়াই ঢাবির বিভিন্ন বিভাগের মাস্টার্সে ভর্তির ব্যাপারে বলছেন তারা। এছাড়া আলোড়ন উঠেছে ঢাবিতে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের মাঝেও।

সদ্য কলেজ পাশ করা এক শিক্ষার্থী eআরকিকে বলেন, ‘আমার ছোটবেলা থেকে ইচ্ছা ইলেকশন করব। কিন্তু রাজনীতি করতে গিয়ে পড়াশোনাটা ঠিকমত করার সময় পাওয়া যায় না। তাই আমিও চাই এই ডাকসু কোটায় যাতে আমাকে পরীক্ষা ছাড়াই ঢাবিতে নেয়। তাইলে আমিও বড় ভাইদের সম্মান অক্ষুণ্ণ রাখতে পারব।’ ঢাবি থেকে অনার্স-মাস্টার্স শেষ করা এক শিক্ষার্থী বলেন, ‘ভার্সিটি পাশ করলেই কি আমাদের কোন অধিকার থাকবে না নাকি? ডাকসু কোটার যে দৃষ্টান্ত স্থাপন হয়েছে, সেটা আমাদের মতো সাবেকদের জন্য অত্যন্ত সুখের খবর।’

পরীক্ষা ছাড়াই ভর্তি ব্যাপারটি নিয়ে ঢাবির এক পলিটিকাল আদুভাই eআরকিকে বলেন, ‘দেখুন, পরীক্ষাবিহীন শিক্ষাব্যবস্থা এখন সময়ের দাবি। বিশ্বের উন্নত সব দেশগুলো তাদের শিক্ষাব্যবস্থা থেকে পরীক্ষার মতো ব্যাকডেটেড ধারণা তুলে দিতে চাইছে। প্রাচ্যের অক্সফোর্ড সেদিক দিয়ে পিছিয়ে থাকবে কেন? মাননীয় ভিসি স্যারের নেতৃত্বে আমরা একটি আদর্শ শিক্ষাব্যবস্থার নজির দাঁড় করাতে চাই আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সামনে।’ ইভিনিং মাস্টার্সে পরীক্ষা ছাড়াই ভর্তির ঘটনাকে সেই লক্ষ্যেই একটি গুরুত্বপূর্ণ মাইলফলক বলে অভিহিত করেন এই নেতা।

ডাকসু নির্বাচনের প্রার্থীদের জন্যই কেন এমন সুযোগ দেওয়া হলো সে বিষয়ে প্রশ্ন করলে অন্য এক পলিটিকাল ছাত্র বলেন, ‘ডাকসু ছাত্রদের আদর্শ পথে পরিচালিত করার একটি প্রতিষ্ঠান। ডাকসুর নেতারাই সাধারণ শিক্ষার্থীদের সামনে এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে।’ তবে ডাকসু কোটা প্রসঙ্গে জানতে চাইলে তিনি বলেন, নির্দিষ্ট একটি দলের জন্যই সেটি রাখার দাবি জানান। 

১৬৮ পঠিত ... ২০:৪১, সেপ্টেম্বর ০৮, ২০১৯

Top