আস্তে আস্তে ফাউল কইরেন কামড় দিয়েন না : মেসিকে সুয়ারেজের পরামর্শ

২০৪ পঠিত ... ১৭:৪৬, জুলাই ০৭, ২০১৯

সাধারণত কোন ফুটবল টুর্নামেন্টের তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচগুলো নিরবে নিভৃতে হয়ে গেলেও চলতি কোপা আমেরিকায় সান্ত্বনার ম্যাচটি আলোচনায় এসেছে বিশ্বব্রহ্মাণ্ডের অন্যতম সেরা ফুটবলার লিওনেল মেসির লাল কার্ড প্রাপ্তির ঘটনায়। 

চিলির বিপক্ষে থার্ড প্লেসের যুদ্ধে যখন আর্জেন্টিনা এগিয়ে ছিল ২-০ গোলে তখন চিলির ডিফেন্ডার গ্যারি মেডেলের সাথে হালকা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন লিওনেল মেসি। ম্যাচের ৩৭ মিনিটে সীমানার বাইরে ঘটে যাওয়া এই আলতো ছোঁয়াছুঁয়ি খেলার মাঝে এসে বেরসিক রেফারি দুজনকেই লাল কার্ড দেখিয়ে খেলা শেষ করে দিতে বলেন। পরে অবশ্য দেখা যায়, কখনোই খুব একটা কার্ডের দেখা না পাওয়া মেসি এ সময়ও লাল কার্ড খাওয়ার মতো তেমন কিছু করেন নি। সেই ২০০৫ সালের পর আর্জেন্টিনার জার্সিতে এটি মেসির দেখা দ্বিতীয় লাল কার্ড।

এই ঘটনা ঘটামাত্রই উচ্ছ্বসিত হয়ে পড়েন মেসির ক্লাব সতীর্থ ও ক্লোজ ছোট ভাই লুইস সুয়ারেজ। কামড়াকামড়ি করে, হাত দিয়ে বল ঠেকিয়ে লাল কার্ড তো জীবনে কম দেখেননি তিনি। প্রিয় বড় ভাইকেও নিজের লাইনে আসতে দেখে তাই তিনি আবেগ ধরে রাখতে পারেননি। মেসি লাল কার্ড দেখামাত্র তিনি ফেসবুক লাইভে চলে আসেন। আবেগে কথা আটকে যাওয়ায় তিনি কিছুক্ষণ ঠোঁট কামড়াতে থাকেন (নিজের)। পরে ভাষা ফিরে পাওয়ার পর বলেন, ‘ভাই, আপনিও! আপনাকে সবসময়ই অনেক আপন লাগতো। কিন্তু আজকে মনে হইতেছে, আপনি আমার ভাই, আপন ভাই।’

নিজেকে একটু সামলে নিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘খেলতে সবাই পারে। কিন্তু লাল কার্ড দেখা একটা আর্ট। দেরিতে হইলেও যে আপনি আমার লাইনে আসলেন, ভাবতেই ভাল লাগতেছে। কিন্তু ভাই বুইঝেন, এই লাইনে কিন্তু আমি সিনিয়র, হে হে…’

এই লাইনে নতুন হওয়ায় বড় ভাই মেসিকে কিছু পরামর্শও দেন সুয়ারেজ, ‘ভাই, ট্যাকল করবেন, আছাড় দিবেন, কিক করবেন না, আস্তে আস্তে ফাউল করবেন, কামড় দিবেন না!’

তবে মূলত বিনা দোষেই লাল কার্ড দেখেছেন মেসি,  ভিডিওর কমেন্টে কেউ কেউ এমনটা জানালে সুয়ারেজ বিরক্ত হয়ে বলেন, ‘আমিও তো সবসময়ই বিনা দোষে কার্ড দেখেছি। আমার কামড়াতে ইচ্ছা হইলে আমি কামড়াবো না? এখানে দোষের কী আছে।’

২০৪ পঠিত ... ১৭:৪৬, জুলাই ০৭, ২০১৯

Top