বিরিয়ানিপ্রেমীদের জন্য এসে গেছে নতুন অ্যাপ ‘এলাচ ফাইন্ডার’

১০৫ পঠিত ... ১৭:১১, জুন ৩০, ২০১৯

গবেষণায় দেখা গেছে, প্রিয় খাবারের নাম বলতে বলা হলে বাংলাদেশের শতকরা ৯৮ ভাগ মানুষ প্রথমেই বিরিয়ানির কথা বলে থাকেন। কিন্তু চাঁদের যেমন আছে কলঙ্ক, তেমনি বিরিয়ানিরও আছে এলাচ। বিরিয়ানির মাঝে সেই শাহী মোগলাই ফ্লেভার পেতে হলে এলাচ না দিয়ে উপায় নেই। কিন্তু গরম গরম তুলতুলে আলুটা ভেঙে, এক খাবলা মাংস ছিঁড়ে বিরিয়ানির সাথে মেখে মুখে দিয়ে স্বর্গসুখে হারিয়ে যাবার বেলায় যখন আচমকা বিটকেল এলাচে কামড় পরে, তখনই বাঁধে বিপত্তি। বিরিয়ানি যদি স্বর্গ হয়, তবে এলাচ যেন সেই স্বর্গের সোপানের ধাপে পড়ে থাকা একটি কলার খোসা। 

বিরিয়ানি গলাধঃকরণের মুহূর্তে এমন বেখাপ্পা এলাচের কবল থেকে বাঁচার হাহাকার চলে আসছে সহস্র বছর ধরে। এই একবিংশ শতাব্দীতে যখন চাঁদের বুকেও মানুষ অনায়াসে এক্কা দোক্কা খেলতে পারে, তারপরও এই সামান্য এলাচের ভয়ে বিরিয়ানি এক্সপেরিয়েন্স ১০০% তৃপ্তি নিয়ে না করতে পারা ছিলো বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির এক বড় ব্যর্থতা। কিন্তু পৃথিবীর সেরা বিজ্ঞানী ও প্রযুক্তিবিদদের অক্লান্ত পরিশ্রমের পর অবশেষে দূর হতে যাচ্ছে বিরিয়ানিপ্রেমীদের জীবন থেকে এক বড় আতংক। শীঘ্রই আসছে নতুন অ্যাপ ‘বিরিয়ানির এলাচ ফাইন্ডার’। 

বিরিয়ানির রসালো কামড়ে আর কখনো কাউকে পেতে হবে না অবাঞ্চিত এলাচের উপস্থিতি। এই নতুন অ্যাপ মাইক্রোভিশন টেকনোলজির সাহায্যে স্ক্যান করে নিতে পারবেন আপনার বিরিয়ানির প্লেটটি। ট্রান্সপারেন্সিগ্রাফের মাধ্যমে আপনার স্মার্টফোনেই ভেসে উঠবে এলাচের ম্যাপিং। অনায়াসেই আপনি প্লেট থেকে সরিয়ে ফেলতে পারবেন বিরিয়ানির এলাচসমূহ। 

এ অ্যাপ নিয়ে তাবৎ বিরিয়ানি-লাভারদের মাঝে দেখা গেছে বাঁধ ভাঙা উচ্ছ্বাস। এলাচের শংকা কাটিয়ে নিশ্চিন্তে বিরিয়ানি চাবানোর স্বাধীনতা পেয়ে উল্লাসে মেতে উঠেছেন তারা। এরকম এক উচ্ছ্বসিত খাদ্যরসিক eআরকিকে জানান ‘স্বৈরমসলা এলাচের হাতে এতদিন জিম্মি থেকে আজ আমরা মুক্তি পেলাম। পরম আনন্দ নিয়ে উপভোগ করা বিরিয়ানির শেষ গ্রাসটিতে এলাচে কামড় দিয়ে পুরো খাওয়াটাই যে কতবার ভেস্তে গেছে, তা হিসাবের বাইরে। আর আমাদের ভাবনা নেই। অ্যাপ এলে সেটি দিয়ে নিশ্চিন্তে বিরিয়ানির জগতে হারিয়ে যাবো, এলাচ নামের জুজুর ভয় ছাড়াই!’

এলাচ আতঙ্কে ভোগা আরেক বিরিয়ানিপ্রেমী অশ্রুসজল চোখে জানান, 'ভাই রে, এলাচে কামড় পড়ার ভয়ে বিরিয়ানিই খাইতাম না এদ্দিন! বিশাল একটা ঝামেলা থেকে মুক্তি পাইলাম! এই অ্যাপটা যে বানাইছে, তারে এক বেলা স্টারে কাচ্চি খাওয়াইতে চাই ভাই।'

তবে বান্দরবানে এলাচের খোঁজ করা অনেকেই অ্যাপটির 'এলাচ ফাইন্ডার' নাম শুনে বিভ্রান্ত হয়েছেন।

এই অ্যাপ সম্পর্কে জানতে প্ল্যানচ্যাট মারফত স্টিভ জবসের সাথে কথা বলতে গেলে তিনি আমাদের বলেন, ‘আমি স্বপ্ন দেখেছিলাম একটি বোতাম ছাড়া ফোনের, যেখানে স্ক্রিন ছাড়া থাকবে না আর কিছুই। ফোনে বোতাম থাকা যেমন বাহুল্য, তেমনি বিরিয়ানিতে এলাচ অবাঞ্চিত। বোতাম ছাড়া ফোন এখনো বিশ্ব না পেলেও, এলাচ ছাড়া বিরিয়ানির প্লেটকে সম্ভব করার জন্য আমি বিজ্ঞানীদের সাধুবাদ জানাই। সম্ভব হলে আমার এখানেও এক প্লেট এলাচ ছাড়া বিরিয়ানি পার্সেল করে পাঠিয়ে দিবেন।’ 

এ অ্যাপ কবে নাগাদ আসবে তার কোন সুনির্দিষ্ট তারিখ জানায় নি অ্যাপ নির্মাতারা। তবে ইদের পরপরই তারা রিলিজ দিতে পারবেন বলে আশা করছেন। এবং এর সাথে বোনাস ফিচার হিসেবে ‘শিঙাড়ায় বাদাম আছে না নেই’ স্ক্যানিং ফাংশন রাখার পরিকল্পনা করছেন তারা।

১০৫ পঠিত ... ১৭:১১, জুন ৩০, ২০১৯

Top