বিয়ের প্রস্তুতি নিয়ে দশটি 'ছেলে আমাদের মানিক চান' কৌতুক

৫৩০ পঠিত ... ১৭:১৭, অক্টোবর ০৩, ২০২২

Biyer-prostuti-koutuk

১#

মেয়ের বিয়ের জন্য ছেলে দেখলেন বাবা মা।

: দেখো, ছেলেটির যত গুণই থাকুক না কেন, ওর মাড়ীটা কিন্তু ভালো না, হাসলে কালো মাড়ী বেড়িয়ে কেমন বিশ্রি দেখায়।

: সেজন্য তুমি ভেব না। তোমাকে আর তোমার মেয়েকে বিয়ে করলে কেউই জীবনে হাসার সুযোগ পাবে না।

 

২#

বাবা: এইমাত্র মেয়েটার গান যে শুনলেন, এর জন্য আমার বহু টাকা ব্যয় করতে হয়েছে।

পাত্রপক্ষ: হ্যাঁ তা হবেই। প্রতিবেশীদের সাথে নির্ঘাত মামলা লড়তে হয়েছিল।

 

৩#

শাকিবের মেয়েকে দেখতে এলো পাত্রপক্ষ। আর পাত্রপক্ষ এলেই মেয়েকে অনেক কিছু জিজ্ঞাসা করা হয়। শাকিবের মেয়েকেও জিজ্ঞাসা করল…

পাত্রপক্ষ: আচ্ছা মা, বল তো পৃথিবী ঘোরে কেন?

পাত্রী: পেটের জ্বালায়, এ জ্বালায় আমার বাবাও পকেট মারে।

 

৪#

পাত্র দেখে এসে মেয়ে মাকে বলছে।

: মা আমি কিছুতেই ওকে বিয়ে করব না, ও দোজখে বিশ্বাস করে না।

: চিন্তা কী মা, তোর সঙ্গে বিয়ের পর থেকেই ও দোজখে বিশ্বাস করা শুরু করবে।

 

৫#

এক বড় চাষীর একমাত্র মেয়েকে বিয়ে করার জন্য ঘটক এক দিনমজুরকে প্রস্তাব দিলেন। প্রস্তাব শুনে দিনমজুর বলল, ‘আমাকে কয়েকটা দিন সময় দিন। কিছু টাকা পয়সা রোজগার করে নিই।

: টাকা পয়সা রোজগারের চিন্তা তোমাকে করতে হবে না। সব সম্পদের মালিক তো তুমিই হবে। এমনকি বাপ হওয়ার জন্যেও তোমাকে ৫ মাসের বেশি অপেক্ষা করতে হবে না। সব তৈরিই আছে।

 

৬#

বিয়ে ঠিক হওয়ার পর পাত্র-পাত্রী আলাদা কথা বলতে গেছে।

পাত্র: তোমার আজকের এই সুখের দিনের জন্য অভিনন্দন জানাই।

পাত্রী: কী ব্যাপার? আমাদের বিয়েতো আজ নয়, কাল।

পাত্র: সেজন্যেই তো তোমার জীবনের শেষ সুখের দিনের জন্য অভিনন্দন জানাচ্ছি।

 

৭#

: আমার মেয়েকে যে বিয়ে করতে চাও ওকে খাওয়াবে পরাবে কী? তোমার মাসিক আয়টা কত শুনি?

: নিশ্চিত আয় মাসে হাজারখানেক, আর এদিক ওদিক করে…

: হাজারখানেক! আমার মেয়ে আমার কাছ থেকে মাসে হাত খরচই পায় এক হাজার টাকা।

: নিশ্চিত আয় বলতে আমি ওটাই মিন করেছি।

 

৮#

প্রেম করে বিয়ে করবে তাই পরিবার, বন্ধু-বান্ধব নিয়ে প্রেমিকাকে দেখতে গেল জলিল।

: আমার বউকে কেমন দেখলি?

: দেখলাম, প্রেম আসলেই অন্ধ।

 

৯#

বিয়ের আগে প্ল্যান করছে পাত্র-পাত্রী।

পাত্রী: আমরা রিসিপশন বিয়ের দ্বিতীয় দিন করব।

পাত্র: কেন? প্রথম দিন কী সমস্যা?

পাত্রী: ভাবি বলেছে, ‘বিয়ের রাত সুখের রাত, সারারাত জেগে থাকতে।’ আমরা দুইজন সারারাত জেগে থাকব তাই পরেরদিন সারাদিন ঘুমাব।

 

১০#  

পাত্রী দেখতে এসে পাত্র বলছে…

: আমি তোমার জন্য বিশ্বের যে কোনো কোনায় যেতে পারি।

: তুমি কি সেখানেই থেকে যেতে পারো? আমার বয়ফ্রেন্ড আছে, আমি ওকেই বিয়ে করব।

৫৩০ পঠিত ... ১৭:১৭, অক্টোবর ০৩, ২০২২

আরও

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

গল্প

রম্য

সঙবাদ

সাক্ষাৎকারকি

স্যাটায়ার


Top