বড়দিনের ছোট কৌতুক: ৮টি মজার ক্রিসমাস জোক

১৬৫৮ পঠিত ... ১৬:৩৬, ডিসেম্বর ২৫, ২০২০

 

১# দুই ভাই ঘুমোতে যাওয়ার আগে প্রার্থনা করছে। প্রার্থনার সময় হুট করেই ছোট ভাই খুব জোরে চিল্লিয়ে বলা শুরু করলো, আমি ক্রিসমাসে একটা বাইসাইকেল চাই, একটা পিএস-৫ চাই বা একটা ভিসিআর। তখন বড়ভাই বিরক্ত হয়ে বললো, 'এত জোরে বলার কী আছে? গড কী কানে কম শুনতে পায় নাকি?' 

'না। কিন্তু দাদু তো কানে কমই শোনে', ছোটভাই উত্তর দিল। 

২# এক ছেলে তার বাবাকে প্রতি ক্রিসমাসে ক্রিসমাস ট্রি এনে দেওয়ার জন্য বায়না ধরে। কিন্তু কিপটে বাবা খরচ করতে হবে বলে কিনে দেয় না। এবার ছেলের ঘ্যানঘ্যান শুনে তিনি বাধ্য হয়ে কুঠার নিয়ে গেল গাছ কেটে আনতে। 

কিছুক্ষণের মধ্যেই বাবা ক্রিসমাস ট্রি নিয়ে এলে ছেলে জিজ্ঞেস করে তিনি কিভাবে এত তাড়াতাড়ি গাছটা কেটে আনলেন। বাবা বললেন, 'আমি তো গাছটা দোকান থেকে এনেছি।' তাহলে কুঠারটা কেন নিয়ে গেল জিজ্ঞেস করায় বাবা উত্তর দিল, 'ওহ, ওটা নিয়ে গেছি যাতে দোকানে টাকা দিতে না হয়।'

৩# এক লোক তার স্ত্রীকে ক্রিসমাস উপলক্ষ্যে খুব সুন্দর ও দামী দেখতে একটি ডায়মন্ড এর আংটি উপহার দিল। উপহারের কথা শুনে তার এক বন্ধু তাকে জিজ্ঞেস করলো, 'তোমার স্ত্রী তো শুনেছি গাড়ি উপহার চেয়েছিল। আংটি দিলে যে?' লোকটি বললো, 'তা সে চেয়েছে। কিন্তু আমি নকল গাড়ি এখন কোথায় পাবো?' 

৪# ক্রিসমাসের আগের দিন চার্চের এক যাজক বিলি গ্রাহাম রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় তার যাত্রাপথ ভুলে যায়। চিনতে না পারায় তিনি এক ছোট ছেলেকে জিজ্ঞেস করেন তাকে পোস্ট অফিসের রাস্তা দেখিয়ে দেওয়ার জন্য। ছেলেটি রাস্তা বাতলে দেওয়ার পর যাজক বললেন, 'তুমি ক্রিসমাসের দিন চার্চে এসো, আমি সেদিন মানুষ কিভাবে স্বর্গে যেতে পারবে তা বলবো।' এ কথা শুনে ছেলেটি বললো, 'আমার মনে হয় না তোমার কথা শুনতে যাওয়া হবে। তুমি তো পোস্ট অফিসের রাস্তাই চেনো না, মানুষকে স্বর্গের রাস্তা দেখাবে কী করে?'

৫# বিচারক এক আসামীকে জিজ্ঞেস করলেন, 'তুমি কী অপরাধ করেছো?' 

আসামী বললো, 'আমি ক্রিসমাসের কেনাকাটা বেশি আগে শুরু করে দিয়েছিলাম আর সেটাই ছিল আমার অপরাধ।'

বিচারক অবাক হয়ে বললো যে এটা তো কোনো অপরাধ হতে পারে না। তুমি কত আগে কেনাকাটা শুরু করেছিলে?

আসামী জানালো, 'দোকান খোলার আগেই।'

৬# ছোট্ট অ্যালেনের বাবা-মা তার জন্য উপহার কিনে ওপরে লিখে দিল, 'স্যান্টার পক্ষ থেকে ছোট্ট অ্যালেনের জন্য উপহার'। সেও খুশিমনে স্যান্টার থেকে পাওয়া সকল ক্রিস্টমাস গিফট একে একে খুললো। কিন্তু এরপর তার বাবা-মা দেখলো সে কেন যেন মনমরা হয়ে আছে। কী হয়েছে জিজ্ঞেস করায় অ্যালেন বললো, 'আমাকে শুধু স্যান্টাই উপহার দিল। তোমরা তো দিলে না!' 

৭# এক বাবা তার ছেলেকে নিয়ে খেলনার দোকানে যায়। তিনি দোকানে ঢুকে একটা ট্রেন সেট দেখে বলেন, 'ইশ! কী সুন্দর খেলনা ট্রেন সেট। আমি এটা নিতে চাই।' দোকানী তার ছেলেকে দেখিয়ে হেসে বলেন, 'জ্বী, নিয়ে যান। আপনার ছেলের এই খেলনা খুব পছন্দ হবে।' তখন ছেলেটির বাবা একটু থতমত খেয়ে বললো, 'হ্যাঁ, ঠিক বলেছেন। তাহলে বরং আমাকে দুই সেট দিয়ে দিন।'

৮# বিদেশে বিভিন্ন শপিং মল কিংবা অনুষ্ঠানে ক্রিসমাসের সময় স্যান্টা ক্লজকে একটি চেয়ারে বসানো হয় ও বাচ্চারা একে একে তার কোলে বসে তাদের ক্রিসমাস উইশ বললে স্যান্টা তাদের ইচ্ছা পূরণ করে। শপিং মলে এমনই এক অনুষ্ঠানে হুট করে বাচ্চাদের মাঝে এক তরুণী এসে স্যান্টার কোলে বসে পড়লো। বড়দের ইচ্ছে পূরণের নিয়ম না থাকলেও মিষ্টি মেয়েটিকে দেখে স্যান্টা তাকে জিজ্ঞেস করলো সে কী চায়। মেয়েটি বললো, 'আমি আমার মা'কে খুশি করতে চাই।' স্যান্টা এ কথা শুনে সন্তুষ্ট হয়ে মেয়েটিকে জিজ্ঞেস করলো সে তার মা'কে খুশি করতে কী দিতে চায়? মেয়েটি বললো, 'আমি মা'কে তার মেয়ের জন্য জামাই দিতে চাই।'

১৬৫৮ পঠিত ... ১৬:৩৬, ডিসেম্বর ২৫, ২০২০

আরও

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

গল্প

রম্য

সঙবাদ

সাক্ষাৎকারকি

স্যাটায়ার


Top