সুন্দরী ফ্রেন্ডের বাসায় তার স্বামীর অনুপস্থিতিতে একদিন

৩৮৩২ পঠিত ... ১৮:১৯, জুলাই ২৭, ২০১৯

 

আমি একজন মধ্যবয়সী পুরুষ। ফেসবুকে আমার অনেক অনেক ফ্রেন্ড। তার মধ্যে অনেক মেয়ে ফ্রেন্ডও আছে। চ্যাট করে, নানারকম গল্পসল্প করে ভালই দিন কাটে।  

এরকম একজন হল অনন্যা। বয়স ত্রিশ, বিবাহিত। অসাধারণ সুন্দর। কি সুন্দর করে কথা বলে ইনবক্সে! কথা বলতে বলতে খেয়ালই থাকে না সময় কোনদিক দিয়ে চলে যায়।

একদিন সে নক দিয়ে বলে, ‘আমার স্বামী ব্যবসার কাজে কুমিল্লা গেছে, বাসায় কেউ নাই। তুমি আসো।'

: তোমার স্বামী যদি ফিরে আসে এর মধ্যে?

: আরে আসবে না। আর আসলে তুমি একটা ন্যাকড়া নিয়ে দরজা জানালা মুছতে থাকবা। আমি ওকে বলব তুমি ক্লিনিং কোম্পানি থেকে আসছো, বাসা পরিষ্কার করতে। এমনিতেও ঈদ সামনে।

: আচ্ছা ঠিক আছে, আসতেছি। 

কি আশ্চর্য! আমি যাওয়ার ৫ মিনিটের মধ্যে ওর স্বামী এসে হাজির। বাধ্য হয়ে জানালার গ্লাস মুছতে শুরু করলাম। গ্রিল পরিষ্কার করলাম। সবগুলা দরজা-জানালা, রান্নাঘরের চিপাচাপা পরিষ্কার করলাম। বাথরুম সাফ করলাম। ফ্যান মুছলাম, ফার্নিচার মুছলাম। ৪-৫ ঘন্টার মধ্যে তাদের পুরা বাড়ি পরিষ্কার ঝকঝকা করে দিলাম। সে আর তার স্বামী মিলে সারাক্ষণ এটা সেটা ইন্সট্রাকশন দিয়ে গেলো।  

পরিষ্কার করা শেষ হলে তার স্বামী বললো, 'আপনার বিল কত হয়েছে?'

সে আগ বাড়িয়ে উত্তর দিল, 'আমি আগেই বিকাশ পেমেন্ট করে দিয়েছি। তারপর ওরা লোক পাঠাইছে।'

‘ও আচ্ছা’ বলে ওর স্বামী আমার হাতে ১০০ টাকা বখশিস দিয়ে দিল। আমি বাসায় চলে আসলাম। ঢাকা শহরে কাজের লোক পাওয়া আজকাল কত কঠিন, তাও বুঝতে পারলাম!

তাই তো বলি পোলাপান, ফেসবুকের সুন্দর সুন্দর মেয়ে দেখে পটে যাইস না, দুনিয়াটা ধোঁকাবাজে ভরে গেছে...

৩৮৩২ পঠিত ... ১৮:১৯, জুলাই ২৭, ২০১৯

আরও

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

গল্প

রম্য

সঙবাদ

সাক্ষাৎকারকি

স্যাটায়ার


Top