স্বাস্থ্যমন্ত্রী ইংরেজিতে মাস্টার্স, আর বাকি মন্ত্রীদের পড়াশোনা কোন লাইনে?

৯৭৫১ পঠিত ... ০৪:৪৩, এপ্রিল ১৬, ২০২০

আমরা সবাই কমবেশি মাননীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী জনাব জাহিদ মালেকের সমালোচনা করছি এই করোনা পরিস্থিতিতে তার জ্ঞানের অগভীরতা দেখে, কেউ কেউ আরো এক কাঠি এগিয়ে বোঝার চেষ্টা করছি ঢাবি থেকে ইংরেজিতে অনার্স-মাস্টার্স করা একজনকে কেন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে!

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সাথে বর্তমান মন্ত্রীদের মধ্যে যার সবচেয়ে ভাল ম্যাচিং হয়, তিনি পালন করছেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে! আরো মজার ব্যাপার হইলো, ঢাকা মেডিকেল থেকে এমবিবিএস করার পর আমেরিকার বিখ্যাত জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মাস্টার্স ডিগ্রি নেয়া মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী ডা: দীপু মনি এর আগে ছিলেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে!

এবার পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত মাননীয় মন্ত্রী জনাব এ. কে. আব্দুল মোমেন হলেন ঢাবি থেকে অনার্স-মাস্টার্স করা অর্থনীতিবিদ!

চবি থেকে কেমিস্ট্রিতে মাস্টার্স করে জনাব মো. হাছান মাহমুদ মাননীয় মন্ত্রী হয়েছেন তথ্য মন্ত্রণালয়ের, বাংলায় বিএ এবং জার্নালিজমে এমএ করে জনাব মোস্তাফা জব্বার মাননীয় ডাক ও টেলি যোগাযোগ মন্ত্রী, ল তে পড়ে জনাব নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন মাননীয় শিল্পমন্ত্রী এবং জনাব শ. ম. রেজাউল করিম হয়েছেন মাননীয় মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী, সাউদার্ন ইউনিভার্সিটি থেকে এমবিএ করে জনাব মো: তাজুল ইসলাম মাননীয় স্থানীয় সরকার এবং পল্লী উন্নয়ন মন্ত্রী, ভূগোলে অনার্স করে জনাব ইমরান আহমেদ মাননীয় প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী।

তবে, ভাল জিনিস যে নাই তা না।

পার্বত্য চট্টগ্রাম মন্ত্রী জনাব বীর বাহাদুর উশৈসিং বিএ + এমএ পড়েছেন পলিটিকাল স্টাডিজ (রা বি), বুয়েট থেকে আর্টিকেচারে পড়ে স্থপতি ইয়াফেস ওসমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির মন্ত্রনালয়ের দায়িত্ব পেয়েছেন, আর আমাদের মাননীয় অর্থমন্ত্রী জনাব আ হ ম মুস্তফা কামাল এফসিএ করা। প্রাসঙ্গিক না হলেও বলে রাখি, মাননীয় সেতু মন্ত্রী জনাব ওবায়দুল কাদের ঢাবি থেকে পলিটিকাল স্টাডিজে পড়ার আগে এইচএসসিতে মেধা তালিকায় ছিলেন!

তবে সবচেয়ে প্রাসঙ্গিক মন্ত্রণালয় পেয়েছেন মাননীয় কৃষিমন্ত্রী জনাব মোঃ আব্দুর রাজ্জাক। তার শিক্ষাগত যোগ্যতা হলো: অনার্স এন্ড মাস্টার্স (কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়), পি এইচ ডি (পারডু ইউনিভার্সিটি, ইউ এস)।

আমাদের মন্ত্রী মহোদয়দের মধ্যে একটা জিনিস লক্ষ্যনীয়, সেটা হলো এলএলবি ডিগ্রি নেয়ার আগ্রহ। আমার মনে হয় ক্যারিয়ারের শুরুতে যখন সবকিছু এত সিকিউরড হয় নাই, একাডেমিক লাইন বিসর্জন দেয়া হয়ে গেছে পলিটিকসের কারনে তখন ক্ষমতায় না থাকলেও যেন কিছু করে খাওয়া যায় এ জন্যে এলএলবি ডিগ্রি নিয়ে রাখার একটা চেষ্টা ছিল সবার আর কী! কিন্তু এই ব্যাখ্যা মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী এবং অর্থমন্ত্রীর ক্ষেত্রে কাজ করে না, দুজনের একাডেমিক ক্যারিয়ার যথেষ্ট রিচ অলরেডি!!

এবার আসি যে সব মন্ত্রী মহোদয়ের শিক্ষাগত যোগ্যতা একটু কম তাদের নিয়ে। মাননীয় মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী জনাব আ ক ম মোজাম্মেল হকের ব্যাপারে আসলে কিছুই জানতে পারি নাই, আর মাননীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জনাব আসাদুজ্জামান খান মনে হয় এইচএসসির পর পড়তে পারেন নাই। আর বাকি সব মন্ত্রীই কমপক্ষে বিএ পাস। 

শেষ করবো, মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়দের মধ্যে সবচেয়ে অদ্ভূত শিক্ষাগত যোগ্যতা যার তাঁকে দিয়ে। এই অ্যাওয়ার্ড পাচ্ছেন মাননীয় ভূমি মন্ত্রী জনাব সাইফুজ্জামান চৌধুরী। 

মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়ের শিক্ষাগত যোগ্যতা সম্পর্কে যা লেখা তা হুবহু তুলে দিচ্ছি:

Mr. Saifuzzaman Chowdhury completed his primary education in Bangladesh and obtained his higher degree on Business Administration from a reputed University of USA.

 

লেখা: মোবারক হোসেন    তথ্যসূত্র: বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট

৯৭৫১ পঠিত ... ০৪:৪৩, এপ্রিল ১৬, ২০২০

আরও eআরকি

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

কৌতুক

রম্য

সঙবাদ

স্যাটায়ার


Top