সাহিত্য ও জীবন নিয়ে ইতালীয় সাহিত্যিক উমবের্তো একোর ১৫টি উক্তি

৭০৭ পঠিত ... ১৬:৫১, জানুয়ারি ০৫, ২০২০

উমবের্তো একো একজন ইতালীয় ঔপন্যাসিক, সাহিত্য তাত্ত্বিক, দার্শনিক ও চিহ্নবিদ্যার অধ্যাপক। তিনি একজন মধ্যযুগ বিষয়ক এক্সপার্ট এই দার্শনিক একজন যশস্বী অনুবাদকও ছিলো। 

একো তার ১৯৮০ সালের উপন্যাস ‘দ্য নেইম অফ রোজ’-এর সবচেয়ে বেশি আলোচিত। এছাড়া ফুকোস পেন্ডুলাম, প্রাগ সিমেট্রি, বা নুমেরো জিরো তার অন্যান্য বিখ্যাত বই। বিচিত্র বিষয়ে এনসাইক্লোপিডিক পান্ডিত্য ও তার বুদ্ধিদীপ্ত উপস্থাপনের দক্ষতা তাকে লেখক দার্শনিকদের মধ্যে অনন্য করেছে।

আজ ৫ জানুয়ারি একোর জন্মদিন। জন্মদিনে পড়া যাক বিভিন্ন সময়ে লিখিত চিন্তাজাগানিয়া ১৫টি উক্তি।



১#
সব কবিই বাজে কবিতা লেখে। দুর্বল কবিরা সেগুলো প্রকাশ করে, ভালো কবিরা সেগুলো পুড়িয়ে ফেলে। 

২#
ভালোবাসা প্রজ্ঞার চেয়েও বেশি প্রজ্ঞাময়। 

৩ #
প্রত্যেক জটিল সমস্যারই একটা সহজ সমাধান আছে, এবং সেই সমাধানটা ভুল। 

৪#
একজন ভয়ংকর সাহসী লোককে সবচেয়ে বেশি সাহস যোগায় অন্য লোকেদের ভীরুতা।  

৫ #
একটা গল্পের উদ্দেশ্য হলো একই সঙ্গে আনন্দ ও শিক্ষা দেয়া। গল্প মানুষকে পৃথিবীর বিচিত্র ফাঁদ সনাক্ত করতে শেখায়।

৬#
অনুবাদমাত্রই ব্যর্থতার শিল্প। 

৭#
সৌন্দর্য্য, কিছু দিক বিবেচনায়, একঘেয়ে। এমনকি সৌন্দর্যের ধারণা যুগের সাথে সাথে বদলালেও, সুন্দর বস্তু সবসময়ই কিছু নিয়ম অনুসরণ করে। কদর্যতা খুব আনপ্রেডিক্টেবল এবং অসীম সম্ভাবনা থাকে কদর্যতার। সৌন্দর্য সীমিত। কদর্যতা সীমাহীন।  

৮#
ভালোবাসা প্রত্যাশায় বেড়ে ওঠে৷  আর সময়ের প্রশস্ত ময়দানের প্রত্যাশা বয়ে চলে সুযোগ ও সম্ভাবনার অভিমুখে। 

৯#
যেহেতু আমি একজন ঔপন্যাসিক, আমি লক্ষ্য করেছি আমি পক্ষপাতদুষ্ট। কোনো উপন্যাসকে আমি মনে করি আমার নিজেরগুলোর চেয়ে খারাপ এবং আমি অপছন্দ করি, অথবা কখনও আশঙ্কা হয় উপন্যাসটা হয়তো আমার চেয়ে ভালো এবং সেটিও আমি অপছন্দ করি। 

১০#
ব্যক্তিমাত্রই সবসময় পৃথিবীতে ভুল রাশি নিয়ে জন্মা্য। এই পৃথিবীতে যথার্থ বেঁচে থাকা মানে আপনার দিনের পর দিন নিজের রাশিফলকে পুনঃলিখন করে যাওয়া।  

১১#
সম্ভবত মানবতাপ্রেমীদের মিশন হলো লোককে সত্যি নিয়ে হাসানো, সত্যিকে হাসানো, কারণ নিজেদের সত্যের প্রতি মানুষের তীব্র অন্ধ আকাঙ্ক্ষা থেকে মুক্ত করাই সত্যির কাজ।   

১২#
নিজের জন্য লিখি বলে দাবি করা লেখকেরা মিথ্যে বলেন। আপনি একটা মাত্র জিনিসই নিজের জন্য লেখেন আর সেটি হলো বাজারের ফর্দ। 

১৩#
মানুষের প্রধান প্রবণতা হলো যেকোন কিছু বিশ্বাস করতে প্রস্তুত হয়ে থাকা। অন্যথায়, চার্চ কিভাবে দুই হাজার বছর ধরে সার্বজনীন বোকামির কারণে  টিকে থাকলো।  

১৪#
প্রকৃত বীর সবসময়ই দুর্ঘটনাক্রমে বীর; অন্য সকলের মতো সেও একজন সৎ ভীরু হওয়ার স্বপ্ন দেখে। 

১৫#
দস্তয়ভস্কি লিখেছেন দুর্ভাগাদের নিয়ে। ইলিয়াডের প্রধান চরিত্র, হেক্টির, একজন দুর্ভাগা। বিজয়ীদের নিয়ে কথা বলাটা খুবই একঘেয়ে। প্রকৃত সাহিত্য সবসময়ই দুর্ভাগাদের কথা বলেছে। মাদাম বোভারি একজন দুর্ভাগা। জুলিয়েন সোরেল একজন দুর্ভাগা।  আমিও একই কাজ করি। দুর্ভাগারা সবময়ই চমকপ্রদ। বিজয়ীরা স্টুপিড কারণ সাধারণত তারা ভাগ্যগুণে জয়ী হয়। 

৭০৭ পঠিত ... ১৬:৫১, জানুয়ারি ০৫, ২০২০

আরও eআরকি

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

কৌতুক

রম্য

সঙবাদ

স্যাটায়ার


Top