অনলাইনে খুঁজে পাওয়া গেছে পরিবেশকর্মী গ্রেটা থুনবার্গের ১২১ বছর পুরোনো ছবি!

৪৭৬ পঠিত ... ২২:২০, নভেম্বর ২৪, ২০১৯

পরিবেশবাদী আন্দোলনের মাধ্যমে সাড়া জাগানো গ্রেটা থুনবার্গকে চেনেন কি? সম্প্রতি সুইডিশ এই মেয়েটির মতন দেখতে একটি একশ বছরের বেশি পুরনো মেয়ের ছবি অনলাইনে সাড়া ফেলেছে। ছবিটি দেখে অনেকে বলেছেন, সম্ভবত গ্রেটা থুনবার্গ টাইম ট্রাভেল করে এসময় এসেছেন সমগ্র মানবজাতিকে রক্ষা করতে!

অনলাইনে ছড়িয়ে পড়া ছবিটিতে গ্রেটার মতো ঠিক একইরকম স্টাইলে লম্বা বেণী করা চুল, মুখের গঠন এবং একই ভঙ্গিতে তাকিয়ে আছে একটি মেয়ে। গ্রেটা থুনবার্গ কী করে একশ বছর আগে পৌঁছলেন, তা অবশ্য কেউই বুঝতে পারছেন না। একশ একুশ বছরের পুরনো এই ছবিটি পাওয়া গেছে ইউনিভার্সিটি অফ ওয়াশিংটনের বিশেষ সংগ্রহ আর্কাইভ থেকে। ১৮৯৮ সালের এই ছবিটিতে তিনটি শিশুকে সোনার খোজে মাটি খোড়ারত অবস্থায় দেখা যাচ্ছে। 

ছবিটি তোলা হয়েছিল ক্বল্যানডাইক গোল্ড রাশের সময়ে। এ সময়ে মানুষ পাগলের মতন স্বর্ণের খোজ করে বেড়াচ্ছিল। ছবিটি তোলা হয়েছে উত্তর-পশ্চিম কানাডার ইয়ুকন অঞ্চলে, তুলেছিলেন এরিক হেগ নামক এক ফটোগ্রাফার।  ছবিটিতে যে মেয়েটি দর্শকদের সবচেয়ে কাছে বসে আছে তার সাথে ১৬ বছর বয়সী গ্রেটা থুনবার্গের চেহারার অভূতপূর্ব সাদৃশ্য দেখা যাচ্ছে। 

ছবিটি প্রথমে টুইটারে ভাইরাল হয় এবং কিছু উদ্ভট ষড়যন্ত্র তত্ত্বের সৃষ্টি হয়। এর মধ্যে একটি হচ্ছে টাইম ট্রাভেলার তত্ত্ব। একজন টুইটার ব্যবহারকারী লেখেন, ‘তো ব্যাপারটা হচ্ছে গ্রেটা থুনবার্গের ১২০ বছরের পুরনো একটি ছবি পাওয়া গেছে এবং এটা এই মুহূর্তে আমার সবচেয়ে পছন্দের ষড়যন্ত্র তত্ত্ব।’ আরেকজন ট্যুইটার ব্যবহারকারীর মতামত, ‘গ্রেটা একজন টাইম ট্রাভেলার, ও ভবিষ্যৎ  থেকে এসেছে, আমাদের বাঁচাতে।’

কয়েকজনের ধারণা, ছবিটিতে নিশ্চয়ই কিছু পরিবর্তন আনা হয়েছে, নাহলে কারণ এত মিল পাওয়া যাওয়ার ব্যাপারটি রীতিমত ভুতূড়ে। 

গ্রেটা থুনবার্গ এই মুহূর্তে দ্বিতীয় বারের মতন আটলান্টিক মহাসাগর পাড়ি দিচ্ছেন, যদিও উত্তাল সাগর এবং ভারি বর্ষার কারণে যাত্রা কিছুটা বিলম্ব হয়েছে বলে তিনি টুইটারে গত বুধবারে জানিয়েছেন। এ বছরের শুরুর দিকে ক্লাইমেট চেঞ্জের ব্যাপারে সারা বিশ্বের লাখ লাখ মানুষকে বিক্ষোভ করতে উৎসাহিত করেছিলেন এই সক্রিয় পরিবেশ কর্মী। তিনি এখন একটি আন্তর্জাতিক কনফারেন্সের জন্য মাদ্রিদে যাচ্ছেন।

গত বুধবারে দ্যা হেগে তিনি ‘ইন্টারন্যাশনাল চিল্ড্রেন্স পিস প্রাইজ’ পুরস্কারে ভূষিত হন। পুরষ্কারটি নিতে তিনি সশরীরে উপস্থিত হতে পারেননি, তবে বলেছেন পুরষ্কারটি পেয়ে তিনি অত্যন্ত কৃতজ্ঞ এবং সম্মানিত বোধ করছেন।

৪৭৬ পঠিত ... ২২:২০, নভেম্বর ২৪, ২০১৯

আরও eআরকি

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

কৌতুক

রম্য

সঙবাদ

স্যাটায়ার


Top