যেভাবে তাজউদ্দীনের কাছে নাজেহাল হয়েছিলেন বিশ্বব্যাংক প্রধান

৫৮৮ পঠিত ... ১৬:৪৯, জুলাই ২৩, ২০১৯

রসিকতার দিক থেকে আমাদের দেশের শীর্ষ রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বরাও কম যান না দেখছি! ঘটনাটির মূল নায়ক দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমদ। পার্শ্বচরিত্র হিসেবে ছিলেন তৎকালীন বিশ্বব্যাংক প্রধান ম্যাকনামারা।

দেশ স্বাধীন হল। কিন্তু দেশের অর্থনীতির নাজুক পরিস্থিত। সাহায্যের জন্য বাংলাদেশকে তখন হাত প্রসারিত করতে হচ্ছে চারদিকে। সবচাইতে ধনবান দেশ আমেরিকা এবং তার সহযোগী বিশ্বব্যাংকের দিকেও হাত বাড়াতে হচ্ছে। আপনারা জানেন আমেরিকা আমাদের মুক্তিযুদ্ধের বিরোধিতা করেছিল। তাই তৎকালীন অর্থমন্ত্রী তাজউদ্দীন না খেয়ে থাকার পক্ষে, কিন্তু অহংকার বিসর্জন দিয়ে সাহায্য নিতে নারাজ। বাস্তব পরিস্থিতি খুব খারাপ থাকায় অবশেষে আমন্ত্রণ জানানো হয় ম্যাকনামারাকে।

সাহায্যের ঝুলি নিয়ে বাংলাদেশে আসেন ম্যাকনামারা। অনিচ্ছাসত্ত্বেও তাজউদ্দীনকে ম্যাকনামারার সাথে বৈঠকে বসতে হয়। এখানেই প্রায় পরাবাস্তব এক নাটকের অবতারণা করেন তাজউদ্দীন। আসুন তাদের কথোপকথন পড়ি-

ম্যাকনামারা : মিস্টার মিনিস্টার আমাকে বলুন বাংলাদেশের কোথায় কী ধরণের সাহায্য দরকার।

তাজউদ্দীন : মিস্টার ম্যাকনামারা আমাদের যা দরকার তা আপনি দিতে পারবেন কিনা আমার সন্দেহ আছে।

ম্যাকনামারা : মিস্টার মিনিস্টার আপনি বলুন, আমরা চেষ্টা করব দিতে।

তাজউদ্দীন : মিস্টার ম্যাকনামারা আমার এখন অনেক গরু দরকার। যুদ্ধের সময় তো কৃষকদের সব গরু হারিয়ে গেছে। এখানে ওখানে চলে গেছে, মরে গেছে। পাকিস্তান যুদ্ধ চাপিয়ে দিলে চাষীরা এদিক সেদিক পালিয়ে গেছে। সে সময়ই সব গরু হারিয়ে গেছে তাদের। এখন যুদ্ধ শেষ, চাষী ফিরেছে কিন্তু গরু নাই, তাই চাষ করবে কিভাবে? তাই এখন আমাদের প্রথম দরকার গরু।

এ পর্যায়ে ম্যাকনামারা অপ্রস্তুত। কি বলবেন বুঝে উঠতে পারছেন না।

তাজউদ্দীন বলেন, 'আরও কথা আছে। গরুর পাশাপাশি আমাদের অনেক দড়িও দরকার। আমাদের সব দড়ি তো পাকিস্তানিরা নষ্ট করেছে, পুড়িয়ে ফেলেছে। এখন শুধু গরু পেলে তো হবে না, গরুকে বাঁধতেও হবে। গরু আর দড়ি খুব তাড়াতাড়ি প্রয়োজন। তা না হলে সামনের মৌসুমে জমিতে চাষ হবে না।'

তথ্যসূত্র: ক্রাচের কর্নেল, শাহাদুজ্জামান।

৫৮৮ পঠিত ... ১৬:৪৯, জুলাই ২৩, ২০১৯

আরও eআরকি

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

কৌতুক

রম্য

সঙবাদ

স্যাটায়ার


Top