ভাগ্যিস বাংলাদেশে না এসে প্যারিস গিয়েছিলাম: মোমের ভাস্কর্যশিল্পী মাদাম তুসো

১৫৭০ পঠিত ... ১৬:৪৫, ডিসেম্বর ০১, ২০২০

ভাস্কর্য নিয়ে বাংলাদেশে চলছে চরম গ্যাঞ্জাম। দেশে কোনো ভাস্কর্য তৈরি হলে তা টেনেহিঁচড়ে ফেলে দেওয়া হবে বলে হুমকি দিয়েছেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের আমির জুনায়েদ বাবুনগরী। ওদিকে তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ আবার বলছেন, ভাস্কর্য আর মূর্তি এক জিনিস না।

এই বিতর্কে চরম বিরক্ত হয়েছেন মোমের ভাস্কর্যশিল্পী কিংবদন্তি মাদাম মেরি তুসো (মানে মাদাম তুসো মিউজিয়ামটা যার নামে আর কি, চিনছেন এইবার?)।

মোমবাতি জ্বালানো একটু রুম থেকে ফেসবুকে লাইভে গিয়ে তিনি বলেন, 'ভাস্কর্য নিয়ে কাজ করতে প্যারিস গিয়েছিলাম। এরপরই আমি সফলতা পাই। ভাগ্যিস সে সময় বাংলাদেশে আসিনি। নাহলে কোনটা ভাস্কর্য আর কোনটা মূর্তি, এই নিয়ে ক্যাচাল করেই পুরো জীবন শেষ হয়ে যেত।'

ভাস্কর্য তো ইসলামপ্রধান অনেক দেশেই আছে, তারপরও বাংলাদেশে এই নিয়ে এত গ্যাঞ্জাম কেন? এমন প্রশ্ন করলে মাদাম তুসো দীর্ঘশ্বাস ফেলে বলেন, 'ভাবতেই মন খারাপ লাগে। মনে হয় মোমের মতো গলে গিয়ে মাটির সাথে মিশে যাই।'

ভাস্কর্য আর মূর্তি কি একই জিনিস নাকি আলাদা? এই প্রশ্ন শুনে মাদাম কিছুটা বিষণ্ণ হয়ে যান। তারপর পাল্টা প্রশ্ন ছুড়ে দেন, 'চাল আর ভাত কি একই জিনিস?'

আমরা এই প্রশ্নে কিছুটা কনফিউজড হয়ে একটু ভেবে বলি, 'না, একই রকম, আবার একই না।'

মাদাম তুসো হাসিতে কিছুটা বিদ্রুপ মাখিয়ে বলেন, 'ওই তো, ওইরকমই।'

এই পর্যায়ে তিনি মোমবাতি নিভিয়ে দিয়ে সেই মোম দিয়ে ভাস্কর্য বানাতে শুরু করলে আমরা লাইনটি কেটে দিতে বাধ্য হই।

১৫৭০ পঠিত ... ১৬:৪৫, ডিসেম্বর ০১, ২০২০

আরও

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

গল্প

রম্য

সঙবাদ

স্যাটায়ার


Top