সম্ভাব্য যেসব কারণে সেন্সরে আটকে আছে শনিবার বিকেল

১৮৪ পঠিত ... ১৬:৪৩, জানুয়ারি ১১, ২০২৩

সম্ভাব্য-যে-সকল-কারণে-মুক্তি-দেয়া-হচ্ছে-না-`শনিবার-বিকেল`-সিনেমা

মুক্তি পাবে পাবে করেও মুক্তি পাচ্ছে না মোস্তফা সারোয়ার ফারুকির সিনেমা শনিবার বিকেল। অনেকেই বলাবলি করছেন, শিল্প-সাহিত্যকে আটকে রাখার, সীমিত করার লক্ষ্যেই এমনটা হচ্ছে। কিন্তু আসলেই কি তাই? নাকি এর পেছনেও আছে ভিন্ন কোনো কারণ? সেন্সর বোর্ড থেকে গুগল ম্যাপের মাধ্যমে এমনই কিছু তথ্য নিয়ে হাজির হয়েছে eআরকি।  

 

১# সিনেমার নামই হয়তো সেন্সরে আটকে থাকার একমাত্র কারণ। লোকমুখে প্রচলিত আছে দিন হিসেবে শনিবার অশুভ। ‘শনিবার বিকেল’নাম রাখার সময় এমন গুরুত্বপূর্ণ বিষয় ভাবা হয়নি দেখে সিনেমাটি মুক্তি দেয়া হচ্ছে না। হাজার বছরের পুরোনো সংস্কৃতি মানবে না, আবার সিনেমা বানাবে তা তো হবে না।

 

২# শুধু শনিবার বিকেল কেন? সিনেমা নাম শনিবার সকাল, শনিবার দুপুরও হতে পারতো। শনিবার বিকেল নাম দিয়ে উনি কী বুঝাতে চেয়েছেন? উনি কি তবে শনিবার থেকে বিকাল ও সকাল বাদ দিতে চাচ্ছেন? এটা তো অন্যায়। তাছাড়া রবি, সোমবার নিয়েও উনি সিনেমা বানাতে পারতেন। এই সিনেমা বার ও সময়ের সাথে অসমতা করেছে।

 

৩# হয়তো মুক্তি দেয়ার এখতিয়ারই সেন্সর বোর্ডের নাই। মুক্তি তো দিবে জজ সাহেব। আধ্যাত্মিক ঘরানায় চিন্তা করলে মুক্তি দিতে পারে কেবল সৃষ্টিকর্তা। দার্শনিকদের মতে, জীবনই মুক্তি, মুক্তিই জীবন। জীবন মুক্তি লাগলে হয়তো তারা দিতে পারতো। সিনেমা মুক্তি কীভাবে দিবে। 

 

৪# যে কোনো কিছুর শুরুটা শুভ হতে হয়। ভালো হতে হয়। হয়তো শনিবার বিকেল সিনেমা মুক্তি দেয়ার মতো কোন শুভদিন পাচ্ছেন না সেন্সর বোর্ড। সেজন্য দেরি হচ্ছে।

 

৫# কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ বলেছেন, ‘যাকে ভালোবাসো তাকে মুক্তি দাও, যদি ফিরে আসে তবে তোমার, যদি সে ফিরে না আসে তাহলে সে কখনোই তোমার ছিলো না।‘ শনিবার বিকেলকে মুক্তি দিলে যদি সে ফিরে না আসে? এই দুঃখ নিয়ে সেন্সর বোর্ড বাঁচবে কীভাবে! সেজন্য হয়তো বারবার পিছিয়ে যাচ্ছে শনিবার বিকেলের মুক্তি।

১৮৪ পঠিত ... ১৬:৪৩, জানুয়ারি ১১, ২০২৩

Top