স্ত্রীর সাথে ঝগড়া হলে যে কারণে আমি খুব খুশি থাকি

৪৮৯ পঠিত ... ১৭:১২, আগস্ট ১১, ২০২২

Strir-sathe-jhogra-hole

স্ত্রীর সাথে ঝগড়া হলে পুরুষমাত্রই বিষন্ন হয়ে পড়েন। দুনিয়ায় বেঁচে থাকাটাই মনে হয় বৃথা! কিন্তু আমি এর প্রচুর সুবিধা খুঁজে পেয়েছি। কে আমি? তা না হয় উহ্যই থাক…

 

# ঘুমের মধ্যে কোনো বাধাবিঘ্ন আসে না। যেমন, ‘শুনছো লাইট বন্ধ করো’, ‘পাখা বন্ধ করো’, ‘চাদরটা এদিকে দাও’, ‘এদিকে মুখ করো’ ইত্যাদি, এই ধরনের কোনো কথা হয় না।

# টাকা বাঁচে। ঝগড়া চলাকালীন সময়ে কোনো খরচ করতে হয় না! কোনো সংসারের কাজ করতে হয় না।

# টেনশন থেকে মুক্তি। কথা বন্ধ থাকার দরুন খিচখিচ হয় না, স্বামী টেনশন থেকে মুক্ত থাকে।

# আত্মনির্ভরতা আসে। যে কাজ নিজে করতে পারি সেই কাজ করি স্ত্রী'র অপেক্ষা না করে। ঝগড়া চলাকালীন সময়ে সেই সব ছোটখাটো কাজ যেমন পানি নিজে নিয়ে খাওয়া, গোসল করে নিজে কাপড় নিয়ে পরা, নিজে চা তৈরী করে খাওয়া।

# অফিসের কাজে ব্যাঘাত হয় না। ঝগড়া চলাকালীন সময়ে স্ত্রীর এমনি এমনি কল যেমন ’ওগো কী করছো’, ‘আজকে ভীষন গরম’, ‘একলা একলা ভালো লাগছে না’, ইত্যাদি না আসার জন্য আপনি নিজের কাজ মনোযোগ সহকারে করতে পারবেন !

# তাড়াতাড়ি বাড়ি ফেরার চিন্তা থেকে মুক্তি। বেশিরভাগ স্বামীদের অফিসে ছুটি হওয়ার সাথেসাথেই ফোন আসতে শুরু করে তাড়াতাড়ি বাড়ি ফেরার জন্য! ঝগড়া চলাকালীন সময়ে এই যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

# আপনার মূল্য বেড়ে যাবে প্রচুর; এটা মনোবৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা। যে জিনিসটার অভাব হতে থাকে তার দাম বাড়ে। যেমন বাজারে এখন আম কম আর তার দাম তাই বেশি। আপনার উপস্থিতি কম হলে স্ত্রী আপনার মূল্য অনুভব করতে পারবে! কিন্তু একটু সাবধান, আম ছাড়াও কিন্তু আমসত্ত্ব বাজারে পাওয়া যায়!

# ভালোবাসা বাড়ে। স্বামী-স্ত্রীর ঝগড়াতে ভালোবাসা বৃদ্ধি পায়, কেননা দেখা গিয়েছে যে এক পশলা বৃষ্টির পর আবহাওয়া মনোরম হয়ে যায়! এ ছাড়া আরও লাভ আছে, কিন্তু সময় অভাবে আজ এটুকুই থাকুক!

৪৮৯ পঠিত ... ১৭:১২, আগস্ট ১১, ২০২২

Top