ঢাকাজুড়ে এতসব ক্যাসিনো কীভাবে সৃষ্টি হলো? জেনে নিন সম্ভাব্য ৮টি উপায়

৫০১ পঠিত ... ২১:১৪, সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৯

রাজধানীর ফকিরাপুলে অবস্থিত ইয়ংমেনন্স ক্লাবে র‍্যাবের অভিযানের পর যে ‘ধারাবাহিক ক্যাসিনো আবিষ্কার’ প্রক্রিয়া শুরু হয়, তা মহাসমারোহে চলছে এখনো! কলাবাগান ক্লাব, মোহামেডান ক্লাবসহ বিভিন্ন ফুটবল ক্লাবে ইতোমধ্যেই ক্যাসিনো খুঁজে পাওয়া গেছে, রয়েছে বিশাল বিশাল সব জুয়ার সরঞ্জাম। এছাড়াও ধারাবাহিক অভিযানে মিলছে আরও ক্যাসিনোর খবর।

আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী জানিয়েছে, তারা যখনই তথ্য পেয়েছেন অভিযান চালিয়েছেন। কিন্তু এসব ক্যাসিনো তো অনেক বছর ধরেই বহাল তবিয়তে চলছে! কীভাবে তা সম্ভব হলো? এইযে ক্যাসিনোর এতসব জিনিসপাতি, এগুলোই বা আসলো কীভাবে? কোথাও এই প্রশ্নের উত্তর না পেয়ে আমরাই ভাবতে বসেছিলাম। গরিবের ক্যাসিনোখ্যাত লুডু খেলতে খেলতে এসব ভেবেছেন আমাদের ক্যাসিনো বিশেষজ্ঞ নাজমুল হকতৌকির আহমেদ

১# আমরা জানি, ঢাকার আকাশে বাতাসে টাকা উড়ে। আবার আমরা এটাও জানি, যে ‘ছোট ছোট বালু কণা, বিন্দু বিন্দু জল গড়ে তোলে মহাদেশ সাগর অতল’। এই বাতাসে উড়ে বেড়ানো টাকাই জমে জমে বিভিন্ন এলাকায় ক্যাসিনো গড়ে তুলেছে। 

২# বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক সুসময় চলছে দেখে দুধের মাছির মতো সুসময়ের বন্ধু হতে ক্যাসিনোগুলো টুপ করে রাজধানীতে উড়ে এসেছে। 

৩# এই ক্যাসিনোগুলোর সব মেশিন জন সিনার কাছে ট্রেনিং নিয়ে এসেছে। জন সিনাকে যেমন কেউ দেখতে পায় না, তেমন করে মেশিনগুলোকেও কাস্টমসে কেউ দেখতে পায় নি। 

৪# রূপের দেবী সবসময় বাংলাদেশের প্রতি সুপ্রসন্ন ছিলেন। কবি, সাহিত্যিকদের কথায়, রূপের দেবী দুহাত ভরে আমাদের দেশকে রূপ যৌবন দান করেছেন। আর বর্তমান পৃথিবীতে রুপ যৌবনের অন্যতম ধারক ও বাহক হলো ইউরোপ-আমেরিকা। রূপের দেবী চেয়েছেন ইউরোপ আমেরিকার কিছু সৌন্দর্য আমাদেরও দান করবেন। ফলে স্বর্গে বসে এক তুড়িতে একরাতেই দেশে গড়ে দিয়েছেন রুপময় ক্যাসিনো।

৫# বাংলাদেশের প্রাক্তন ক্রিকেটার ও কোচ খালেদ মাহমুদ সুজন ক্যাসিনোর খাবারকে প্রমোট করার পর দেশবাসীদের মনে ক্যাসিনোর খাবার খাওয়ার বাসনা জেগে উঠে। সেই চাহিদাকে ক্যাশ করে রেস্টুরেন্ট ব্যবসায়ীরা ক্যাসিনো স্থাপন করেন, যদিও এগুলোর মূল উদ্দেশ্য ছিলো গরম ভাত ও মাগুর মাছের ঝোল পরিবেশন করা। 

৬# জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষপ্পরে আমাদের দেশের জলবায়ু অনেকটা লাস ভেগাসের মতো হয়ে গেছে। সিমিলার জলবায়ু পাওয়ায় অতিথি পাখির মতো ক্যাসিনোগুলোও বাংলাদেশে ঘুরতে এসেছিলো। পরবর্তীতে কিছু অসাধু ব্যবসায়ীর হাতে আটকে পড়ায় তারা নিজ দেশে ফিরে যেতে পারে নি। 

৭# কয়দিন পরই দেশের যুবকদের প্রেমে পরে ইউরোপ-আমেরিকা থেকে লাস্যময়ী সুন্দরীরা নিজের দেশ ছেড়েছুড়ে শুধু প্রেমের টানে বাংলাদেশ চলে আসছেন। আর বাংলাদেশের বেশিরভাগ ক্যাসিনোর মালিকই দেশের একটি যুব সংগঠনের নেতাকর্মী । ইউরোপ-আমেরিকার ক্যাসিনোও হয়তো আমাদের এইসব যুবকদের প্রেমে পড়েছেন। আর সেই প্রেমের টানেই…

৮# ক্যাসিনো আসলে এক প্রকার খনিজ পদার্থ। এটা খনি থেকে আবিষ্কৃত হয়। এতদিন খনি থেকে ক্যাসিনো উত্তোলনের কোনো সিস্টেম আবিষ্কার না হওয়ায় সেগুলো খুঁজে পাওয়া যায়নি। এখন সেই খনিগুলোকে চিহ্নিত করে ক্যাসিনো উত্তোলন করা হচ্ছে।

৫০১ পঠিত ... ২১:১৪, সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৯

Top