৩৭ লাখ টাকা দামের পর্দায় থাকতে পারে যে ১০টি এক্সক্লুসিভ ফিচার

১৮৬৪ পঠিত ... ১৭:০১, সেপ্টেম্বর ০৫, ২০১৯

রূপপুরের ৬ হাজার টাকার বালিশ ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ৮৫ হাজার টাকার বইয়ের পর একই বছরে খোঁজ পাওয়া গেল ৩৭ লাখ টাকার পর্দার। ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রোগীকে আড়াল করার পর্দা প্রতিটি কেনার খরচ দেখানো হয়েছে ৩৭ লাখ ৫০ হাজার টাকা। উচ্চমূল্যের পর্দা ছাড়াও ১টি স্টেথোস্কোপের দাম ১ লাখ ১২ হাজার টাকা, ১টি ডিজিটাল ব্লাড প্রেশার মেশিনের দাম দেখানো হয়েছে ১০ লাখ টাকা। খবর: ভোরের কাগজ। 

সাড়ে ৩৭ লাখ টাকার পর্দা নিয়ে কৌতূহলী পুরো দেশবাসী। কী আছে এই পর্দায় যে এত দাম? এই প্রশ্নের উত্তর খোঁজার চেষ্টা করেছে eআরকি। eআরকির পর্দা গবেষক নাজমুল হক আপনাদের জানিয়েছেন, এই পর্দার সম্ভাব্য ১০টি এক্সক্লুসিভ ফিচার।



১# এটা আসলে অ্যান্ড্রয়েডচালিত ডিজিটাল স্মার্ট পর্দা। এইটাতে থাকবে অটো আপডেট সিস্টেম। যা ডাক্তার না থাকলেও রোগীর অবস্থা অনুযায়ী ওষুধ সাজেস্ট করতে পারবে। এমনকি ডাক্তার যদি অপারেশন করতে করতে অপারেশনের সিস্টেম ভুলে যায়, পর্দায় অপারেশন করার ইউজার ম্যানুয়াল স্বয়ংক্রিয়ভাবে ফুটে উঠবে।

২# এই পর্দা আলাদিনের জাদুর পাটির মতো ইমার্জেন্সি মোমেন্টে ডাক্তারদের বাহন হিসেবে ইউজ করা যাবে। ইউজ করা যাবে দ্রুতগতির অ্যাম্বুলেন্স হিসেবেও।

৩# এটাকে লাল গালিচা হিসেবেও ব্যবহার করা যাবে। দুর্নীতিতে কেউ এই রেকর্ড ছাড়িয়ে গেলে তাকে এই গালিচার মধ্য দিয়ে সম্মানিত করা হবে।

৪# এই পর্দায় থাকবে ন্যাচারাল অক্সিজেন প্রোভাইডর সিস্টেম। যা রোগীকে সরাসরি অক্সিজেন সরবরাহের কাজ করবে। অক্সিজেন রি-প্রোডিউস করার বিশেষ ব্যবস্থাও থাকবে এতে।

৫# একেবারেই অসম্ভব অপারেশনের ক্ষেত্রে ডাক্তারের কাঁধে হাত রেখে এই পর্দা বাংলা সিনেমার মায়েদের মতো করে বলে উঠবে 'তুমি পারবে বাবা। তোমাকে পারতেই হবে।’ এই রোগীকে বাঁচাতেই তাকে ডাক্তার বানানো হয়েছে; এই কথাও মনে করিয়ে দেবে।

৬# এই পর্দায় থাকবে বিশেষ মোটিভেশন স্ট্রিমিং ব্যবস্থা। রোগীকে বেঁচে থাকার সাহস যোগাতে এই পর্দা লাইভ মোটিভেশন দিয়ে যাবে।

৭# কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার অধিকারী এই পর্দা প্রয়োজনে (রোগীর মানসিক অবস্থা বিবেচনা করে) আইসিইউ-এর বাইরে অপেক্ষমান রোগীর আত্মীয়স্বজনের ছবি/ভিডিও দেখাতে শুরু করবে, যেন রোগী সুস্থ হওয়ার জন্য মনের জোর পায়!

৮# ফাঁস হওয়া প্রশ্ন পত্রে পরীক্ষা দিয়ে মেডিকেলে চান্স পাওয়া শিক্ষার্থীদের জন্যই আসলে এই পর্দা। এখানে সব ধরনের রোগের ডেমো চিকিৎসা দেয়া থাকবে। অনৈতিকভাবে ডাক্তার হওয়া ডাক্তাররা এই ডেমো দেখে চিকিৎসা করতে পারবে। ফলে চিকিৎসাক্ষেত্রে বিশেষ বিপর্যয় থেকে বেঁচে যাবে জাতি।

৯# রোগী বিছানায় শুয়ে থেকে থেকে বোরড হয়ে গেলে এই পর্দায় অত্যাধুনিক প্রোজেকশনের মাধ্যমে বিনোদনের ব্যবস্থা থাকবে। নতুন মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমা বা ঈদের নাটক দেখে নিমেষেই রোগী হয়ে উঠবেন চাঙ্গা।   

১০# সূর্যের অতিবেগুনী রশ্মি, বাতাসে ভেসে বেড়ানো নাম না জানা পার্টিকেল থেকে শুরু করে সব রকমের ক্ষতিকারক বিষয়কে দূরে রাখতে পারে এই পর্দা। তাতে রোগী থাকবেন আরও নিরাপদ। 

১৮৬৪ পঠিত ... ১৭:০১, সেপ্টেম্বর ০৫, ২০১৯

Top