অ্যাভেঞ্জার্স এন্ডগেম না দেখেই যেভাবে ফেসবুকে রিভিউ লিখবেন

৩৭৭ পঠিত ... ২২:৩১, এপ্রিল ২৭, ২০১৯

সময় এখন অ্যাভেঞ্জার্স এন্ডগেমের। দেখুন বা না দেখুন, ফেসবুকে এই মুভির একটা রিভিউ দিতে পারলেই কিন্তু আপনি 'চ্যালচালাইয়া' জাতে উঠে যাবেন। কিন্তু সেজন্য কষ্ট করে টিকিট ম্যানেজ করে কিংবা টরেন্টে নিম্নশ্রেণীর হলপ্রিন্ট নামিয়ে কষ্ট করে মুভিটি দেখার কোনো দরকার নেই।

না দেখেই রিভিউ, ভাবছেন এটা আবার কিভাবে সম্ভব? নেপোলিয়ন বেনাপোর্ট তো আর খালি খালি বলে যায়নি, 'eআরকি পাঠকদের টাইমলাইনে অসম্ভব বলে কোনো স্ট্যাটাস নেই।' তো চলুন, জেনে নেই সিনেমা না দেখেই অ্যাভেঞ্জার্স এন্ড গেমের রিভিউ লেখার সাতটি সহজ উপায়!

১# রিভিউ এর একদম শুরুতেই লিখতে হবে স্পয়লার ফ্রি। স্পয়লার দিলে লোকে রিভিউ পড়বে না, এটা সমস্যা না। সমস্যা হলো আপনি মুভি দেখেন নাই, সুতরাং আপনার পক্ষে স্পয়লার দেয়া সম্ভব না৷ তাই এ ক্ষেত্রে স্পয়লার মুক্ত রিভিউ হ্যাশট্যাগ দিয়ে দেয়াই বেটার।

২# সবাইকে জানিয়ে দিন এই মুভির প্রতি আপনার কত ভালোবাসা, টান, আগ্রহ আর অধীর অপেক্ষা ছিল। গুগল থেকে জেনে নিন অ্যাভেঞ্জার্স চরিত্রদের নিয়ে মোট মুভি বাইশটা। লিখুন, 'একে একে বাইশটা মুভি দেখেছি ছোটবেলা থেকেই। সবকিছুর শেষ দেখার জন্য যেন আর তর সইছিলো না।'
ভোর থেকে লাইনে দাঁড়িয়ে কত কষ্টে একটা টিকিট কেটেছেন, এটাও জানিয়ে দিতে ভুলবেন না।

৩# যেহেতু এখন পর্যন্ত অ্যাভেঞ্জার্স এন্ডগেমের রোটেন টমাটোসে ৯৭ পার্সেন্ট আর আইএমডিবিতে ৯.২ রেটিং, সুতরাং ডিসিশন নিয়ে ফেলুন আপনার রিভিউটি হবে পজিটিভ রিভিউ। ভুলেও নেগেটিভ রিভিউ দিতে যাবেন না৷ তাহলে মার্ভেল ফ্যানদের থেকে আপনি ডিসি ফ্যান, ইংরেজি বুঝেন না থেকে শুরু করে বাপ্পি চৌধুরীর ফ্যানের খেতাবও পেতে পারেন। তাই সাবধান। রিভিউ হোক পজিটিভ।

৪# রিভিউ শুরু করুন 'এক কথায় রিভিউ' দিয়ে। বলুন, এককথায় মুভিটি অসাধারণ। জাস্ট মাইন্ডব্লোয়িং। কোনো কথা হবে না। আরো বলে দিন, আপনার এক্সপেকটেশন সম্পূর্ণ পূরণ হয়েছে মুভি দেখে।

৫# এবার বিস্তারিত রিভিউ। এই অংশটা খুবই ইম্পর্টেন্ট। উল্টাপাল্টা কিছু বললে ধরা খেয়ে যেতে পারেন যে অ্যাভেঞ্জার্স এন্ডগেম আপনি দেখেননি। সুতরাং বলুন, 'স্পয়লার দেয়া হয়ে যাবে বলে কাহিনী কিছুই খুলে বললাম না। তবে অনেক চমক আছে। আপনারা হলে গিয়ে দেখেন মজা পাবেন।'
মার্ভেলের সিনেমায় চমক থাকবে এটাই স্বাভাবিক। আরো একটা জিনিস থাকবেই সেটা হলো হিউমার প্লাস ইমোশন। হিউমার তো সবসময় থাকে, তবে এটা যেহেতু শেষ কিস্তি সো ইমোশনও থাকবে৷ লিখুন, 'যেমন হাসি পেয়েছে তেমন চোখে জল এনে দেয়া মুহুর্তও ছিলো। থরের এন্ট্রিতে পুরা গায়ের লোম দাঁড়ায় গেছে।' আমিও মুভি না দেখেই বলতেছি... নিশ্চিত থাকেন থরের একটা দুর্দান্ত এন্ট্রি থাকবেই।

৬# এবার আসুন মুভির টেকনিক্যাল আলোচনায়। এটা মার্ভেল ইউনিভার্সের ড্রিম মুভি। সুতরাং স্বাভাবিকভাবে খুব ভালো এনিমেশন, গ্রাফিক্সের কাজ থাকবেই। সুতরাং অসাধারণ গ্রাফিক্সের কাজ কথাটার সাথে উল্লেখ করে দিন স্টার সিনেপ্লেক্সের থ্রিডি পর্দায় দেখতে ফাটাফাটি লেগেছে। গুগল থেকে ডিরেক্টরের নাম জেনে নিয়ে লিখুন, 'রুশো ব্রাদার্স এই মুভিতে দারুণ মুন্সিয়ানা দেখিয়েছে। তারা একদম দশে দশ।'

৭# এবারে পার্সোনাল রেটিং দেয়ার পালা। ৮.৫ থেকে ৯.৫ এর মধ্যে আন্দাজে একটা রেটিং দিয়ে দিন। সবশেষে হালকা আবেগ দিয়ে, 'তরুণ প্রজন্মের মারামারি করে এই সিনেমার টিকিট কাটা দেখেই বোঝা যায় ভালো মুভির দর্শক আমাদের আছে। আফসোস আমাদের পরিচালক প্রযোজকরা এই জেনারেশনের চাহিদা অনুযায়ী ভালো সিনেমা বানাতে ব্যর্থ হচ্ছে। আশা করব একদিন তারা সফল হবে। আমরাও এতো ক্রেজ নিয়ে দেশীয় সিনেমা দেখব। সেইদিনের অপেক্ষায় রইলাম' লিখে রিভিউ শেষ করুন।

এইতো লেখা হয়ে গেল সাত স্টেপে না দেখেই অ্যাভেঞ্জার্স- এন্ডগেমের একটি রিভিউ। এবারে গরম গরম রিভিউটি নিজের আইডি বা সিনেমা গ্রুপে পোস্ট দিয়ে কিছু লাভ রিয়্যাক্ট লুফে নিন। ধন্যবাদ।

৩৭৭ পঠিত ... ২২:৩১, এপ্রিল ২৭, ২০১৯

Top