যে ১০টি উপায়ে বাংলাদেশের মা-খালারা এখনও জি বাংলা দেখতে পারেন

৮৩৫ পঠিত ... ১৮:১৬, এপ্রিল ০৩, ২০১৯

বাংলাদেশে ভারতীয় জি নেটওয়ার্কের সব চ্যানেলের সম্প্রচার বন্ধ রাখা হয়েছে। গত ২ এপ্রিল তথ্য মন্ত্রণালয়ের এক নির্দেশে বাংলাদেশের ক্যাবল অপারেটরেরা বন্ধ করেছেন এই সম্প্রচার।  জি বাংলা, জি বাংলা সিনেমা, জি সিনেমা ও জি টিভিসহ এই নেটওয়ার্কের সবগুলো চ্যানেলের সম্প্রচার বন্ধ আছে বাংলাদেশে। বিজ্ঞাপন সংক্রান্ত এক জটিলতার কারণে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।

বাংলাদেশের দর্শকদের কাছে, বিশেষ করে আমাদের মা-খালা কিংবা আন্টিরা তাদের অবসর সময়ে জি চ্যানেলগুলোর নানান সিরিজ কিংবা শো দেখে থাকেন। এই চ্যানেলগুলোর মধ্যে জি বাংলাই সবচেয়ে জনপ্রিয়। এই সিদ্ধান্তে অনেকেই জি বাংলাতে প্রচারিত নাটক আর রিয়েলিটি শোগুলো দেখতে পারছেন না। কিন্তু কথায় আছে, ইচ্ছা থাকলে উপায় হয়। যদি আপনি সত্যিই জি বাংলার ফ্যান হয়ে থাকেন, তবে যেকোন কিছুর বিনিময়ে হলেও আপনার দেখা নিয়মিত অনুষ্ঠানের কোন পর্ব মিস করবেন না। তাই বাংলাদেশের টিভিতে দেখতে না পেলেও আর কী কী উপায়ে জি বাংলা দেখতে পারেন, তা নিয়ে ভেবেছে eআরকি 'জি হুজুর' দল।

১# নিজেদের জীবনকে আরো গভীরভাবে দেখতে পারেন, কারণ আমরা জানি যে ‘জীবন মানেই জি বাংলা!’

২# উচ্চ ক্ষমতার টেলিস্কোপ কিনে আপনার লিভিং রুমের জানালার পাশে সেট করে নিন। পাশের বাসার জানালা দিয়ে টিভি দেখার মতো করে পাশের দেশের টিভি দেখতে ব্যবহার করুন টেলিস্কোপ।

৩# ভারতে যদি কোন আত্মীয় থাকে, তবে পছন্দের অনুষ্ঠান দেখানোর জন্য ফেসবুক লাইভে আসতে পারেন। কিংবা ফেসবুকে ওয়াচ পার্টির আয়োজন করার ব্যবস্থা করতে পারেন।

৪# অ্যান্টেনা ধরে নাড়াচাড়া করলে অনেক সময় অপ্রত্যাশিত কিছু চ্যানেল চলে আসে। সেভাবে নাড়াচাড়া করলে হয়তো ভারতের জি বাংলার সম্প্রচারের সিগনাল ধরে ফেলতে পারেন টিভিতে।

৫# জি বাংলার সিগন্যাল পেতে সমবায় পদ্ধতিতে একটি স্যাটেলাইট নিক্ষেপ করতে পারেন।

৬# স্নো হোয়াইট বা তুষারকন্যার সৎ মায়ের জাদুর আয়নাটি যোগাড় করে সেটিকে জিজ্ঞেস করতে পারেন, ‘বলো তো সবচেয়ে আজগুবি বাংলা নাটক জি নেটওয়ার্কের কোন চ্যানেলে দেখায়?’ এই প্রশ্নের উত্তর দিতে এটিকে নির্ঘাৎ জি বাংলা দেখাতেই হবে।

৭# ভারত থেকে কাউকে রেকর্ড করে ক্যাসেট বা সিডি আকারে পাঠাতে বলতে পারেন। এতে করে সেই পুরোনো সিডি-ক্যাসেটের যুগের ফ্লেভারটাও ফিরিয়ে আনা যাবে।

৮# ডিসি কমিকের সুপারহিরো ফ্ল্যাশকে জি বাংলার নাটক ও অনুষ্ঠানমালার কাহিনী বর্ণনার কাজ দিতে পারেন। এক দৌড়ে সে আপনার পছন্দের অনুষ্ঠানটির কাহিনী জেনে এসে আপনাকে শুনিয়ে দিবে। একটি স্মার্টফোন আর পাওয়ার ব্যাংক দিয়ে দিলে জি বাংলার অনুষ্ঠানের ‘হোম প্রিন্ট’ ভিডিও করেও সে নিয়ে আসতে পারবে।

৯# জি বাংলা নামের খুব কাছাকাছি বানানের কোনো বাংলাদেশি চ্যানেল খুলে ফেলা যেতে পারে, সাপোজ 'জ্বি বাংলা'! এখানে জি বাংলার সিরিয়ালগুলোর একের পর এক রিমেক নির্মাণ করে সম্প্রচার করলেই তো হয়ে গেলো (বাংলাদেশি চ্যানেলগুলো যদিও তাই করে আসছে...)।

১০# তবু খুব বেশি জি বাংলা মিস করলে, স্টার জলসার চ্যানেলের লোগো যেখানে ওঠে, টিভি স্ক্রিনে ঠিক সেখানে একটি জি বাংলার স্টিকার লাগিয়ে দিতে পারেন। অনুষ্ঠানে খুব একটা পার্থক্য পাবেন না।

৮৩৫ পঠিত ... ১৮:১৬, এপ্রিল ০৩, ২০১৯

Top