হায় রে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স!

৫৫২ পঠিত ... ১৭:৩৬, অক্টোবর ০১, ২০২২

Hayre-AI

লেখা: নাহিদ আশরাফ উদয়

 

দারাজ থেকে প্রায়ই বিভিন্ন জিনিস অর্ডার দেই। বেশিরভাগ সময়ই বিভিন্ন খেলনা আর কার্ল চিপস থাকে অর্ডার লিস্টে।

আমার বয়স এবং অর্ডার হিস্ট্রির উপর বেস করে এদের আর্টিফেশিয়াল ইন্টিলিজেন্স ধরে নিয়েছে, আমি বিবাহিত পুরুষ। আমার দুই বাচ্চা আছে। এক বাচ্চা কমদামী একশন ফিগার, মডেল কার ইত্যাদি দিয়ে খেলে, আরেক বাচ্চা শুধু পাজেল খেলতে পছন্দ করে। আমার একজন বউ আছেন এবং তার সাথে আমার প্রায়সই ঝগড়া হয় জন্য তিনি বাপের বাড়ি যান। কারণ বাপের বাড়ি গেলে আমি রান্না করার পরিবর্তে কার্ল চিপস খেয়ে কাটিয়ে দেই।

মোবাইলে সারাক্ষণই নোটিফিকেশন আসতে থাকে

‘কী নাহিদ সাহেব? বাচ্চার খেলনা নিয়ে আর ভাবনা কেনো? এই দেখুন....’

‘ডেলিভারি চার্জের ভয়ে বাচ্চাদের খেলতে খেলনা দিচ্ছেন না?..’

‘মন ভাঙ্গার চেয়ে খেলনা ভাঙ্গা সহজ... কমদামি খেলনা ভাঙ্গতে কিনে ফেলুন...’

এতটুকু হলেও চলতো,

কিন্তু তাদের AI আরেকটু এগিয়েছে, কিছুদিন আগে নোটিফিকেশন আসা শুরু হলো,

‘আপনি না জানলেও, ভাবীর পছন্দ কিন্তু আমরা জানি...’

ভাবলাম ভবিষ্যতে কাজে দিবে। পছন্দ জানতে ভেতরে ঢুকলাম। সানস্ক্রিন এর উপর ফ্ল্যাশ অফার চলছে, এটা জানাতেই এত বাহানা।

এরপর আরেকদিন পেলাম,

‘শসসসস...নাহিদ, ভাবী কি বাসায় নেই? তাহলে এখনই সুযোগ। অর্ডার করুন...’

নোটিফিকেশন দেখে জিহ্বায় কামড় দিলাম। কী একটা অবস্থা। এইসব কি আসতেছে! আমি আশপাশ তাকিয়ে কেউ নেই নিশ্চিত করে অ্যাপে ঢুকলাম।

কার্ল চিপসের ১০টা প্যাকেটের বান্ডেলের জন্য অর্ডারে ১০ টাকা ডিস্কাউন্ট দিচ্ছে।

কিনে নেবো?

৫৫২ পঠিত ... ১৭:৩৬, অক্টোবর ০১, ২০২২

আরও

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

গল্প

সঙবাদ

সাক্ষাৎকারকি

স্যাটায়ার


Top