হাওয়া দেখার একদিন

৫৬১ পঠিত ... ১৬:৩৬, আগস্ট ১৩, ২০২২

Hawa-dekhar-ekdin

 

 

লেখা: নাবিল আহমেদ

 

হাওয়া মুভিটা দেখার খুব ইচ্ছে রায়হানের। সমস্যা হলো মুভির টিকিট পাওয়া যাচ্ছে না। রায়হানের মাথায় একটা বুদ্ধি এলো। সে নীলক্ষেত থেকে সিনেপ্লেক্সের একটা টিকিট বানিয়ে ফেললো। টিকিটটা দেখতে হুবহু সিনেপ্লেক্সের টিকিটের মতো হয়েছে।  ছেলেটার কাজ ভালো!

টিকিট নিয়ে রায়হান সিনেপ্লেক্সে হাজির হলো। গেটে তেমন কোনো সমস্যা হলো না। গেটম্যান হয়ত কল্পনাও করেনি এমন কিছু হতে পারে।

রায়হান সিটে বসে আছে। সিনেমা এখন শুরু হয়নি। এ সময় দুইজন এসে হাজির হলো। একটা মেয়ে আর ছেলে। ওরা বলল, এই সিট ওদের।

রায়হান ওর টিকিটা দেখালো। সিট নাম্বার তো এটাই লেখা! এক নাম্বারে দুইটা টিকিট!  এ সব দুই নাম্বারি রেল-টিকিট নিয়ে হয় শোনা যায়।

মুহুর্তের মধ্যে একটা হইচই শুরু হয়ে গেল। চিৎকার শুনে ম্যানেজার ছুটে আসল। রায়হানকে কোমল গলায় বলল, ‘স্যার আপনি তো একা। আপনি একটু আমার সাথে আসেন আমি সব ব্যবস্থা করছি।‘

অন্যদের কাছে ক্ষমা চেয়ে ম্যানেজার রায়হানকে নিয়ে বেরিয়ে আসলো।

রায়হান ম্যানেজারের রুমে বসে আছে। ওর সামনে কফি দেয়া হয়েছে। 

ম্যানেজার বলল, ‘স্যার, আমি দশ বছর ধরে এখানে চাকরি করি। এমন ভুল কোনোদিন দেখিনি। আমরা অত্যন্ত দুঃখিত স্যার।‘

‘আমি এখন কী করবো বলুন?’

‘স্যার, আজকের তো টিকিট নেই। আমি আপনাকে দুইদিন পরের দুইটা টিকিট দিচ্ছি।  আপনি কষ্ট করে দুইদিন পরে এসে মুভিটা দেখুন।‘

রায়হান একটু বিরক্ত হয়ে বলল, ‘আপনি জানেন আমি কত দূর থেকে এসেছি?’

‘আমি বুঝতে পারছি স্যার। আমাদের ভুলের জন্য আপনার কষ্ট হয়ে গেল। কিছু মনে করবেন না।‘

ম্যানেজার দুইহাজার টাকা রায়হান দিয়ে দিলো। রায়হান তো সেই খুশি! দুইটা টিকিট পাওয়া গেলো, সাথে দুই হাজার টাকা। আয় খারাপ হলো না!

রায়হান গার্লফ্রেন্ডকে কল দিয়ে বলল, ‘সুইটি তোমার জন্য হাওয়া মুভির টিকিট জোগাড় করেছি।‘

সুইটি অনেক খুশি। প্লান হলো আগামীকাল দুইজনে মুভি দেখতে যাবে। টিকিট তো আছে। খরচ হিসাবে দুইহাজার টাকাও পাওয়া গেছে!

সকাকে নাস্তা খাওয়ার জন্য রায়হান রেস্টুরেন্টে ঢুকেছে। কিছুক্ষণের মধ্যে সুইটি চলে আসবে। তারপর দুইজনে মুভি দেখতে যাবে।

নাস্তা খেয়ে রায়হান ওয়েটারকে বিল দেয়ার জন্য এক হাজার টাকার নোট দিলো। একটু ওয়েটার এসে বলল, ‘স্যার এই নোট বদলে দিন।‘

রায়হান টাকাটা নিয়ে অন্য এক হাজার নোট দিলো। এই টাকাটা সিনেপ্লেক্স থেকে পেয়েছে ও। একটু পরে ওয়েটার এসে বলল, ‘স্যার এটাও চলবে না!’

রায়হান একটু রেগে গেলো, ‘কী সমস্যা?’

‘স্যার,দুইটা নোটই নকল!’

রায়হান হতবাক হয়ে ওয়েটারের দিকে তাকিয়ে রইল অনেকটা সময়। বিল দিয়ে বেরিয়ে আসলো। পকেট থেকে সিনেপ্লেক্সে টিকিট দুইটা বের করল।  ভালো করে খেয়াল করলো। টিকিটের বিপরীতে পাশে লেখা। ‘টিকিট শুধু আপনি বানাতে পারেন,  আমরা পারি না?’  

৫৬১ পঠিত ... ১৬:৩৬, আগস্ট ১৩, ২০২২

আরও

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

গল্প

সঙবাদ

সাক্ষাৎকারকি

স্যাটায়ার


Top